শিরোনাম :

পিরোজপুরে জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীর র‌্যালিতে পুলিশের লাঠিচার্জ


সোমবার, ৩০ মে ২০১৬, ০৫:১৬ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

পিরোজপুরে জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীর র‌্যালিতে পুলিশের লাঠিচার্জ

পিরোজপুর প্রতিনিধি: বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৫ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে পিরোজপুরে বিএনপি একটি র‌্যালিতে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। এ সময় বিএনপি ১০ জন কর্মী আহত হয়।এরপরে পুলিশ জেলা বিএনপির কার্যালয় তালাবদ্ধ করে দেয়। পরে শহরের টাউনক্লাব মাঠে পৌর বিএনপি ও সদর উপজেলা বিএনপির আয়োজিত দোয়া ও আলোচনা সভাও পুলিশ পণ্ড করে দেয়।

এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক আলমীর হোসেন জানান, সারা দেশের ন্যায় আমরা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দোয়া ও আলোচনা শুরু করেছিলাম। কিন্তু পুলিশ এসে আমাদের মাইক গুলো প্রথমে বন্ধ করে দেয়। পরে আমারদের নেতা-কর্মীরা শোক র‌্যালি নিয়ে আসতে শুরু করলে তাদের পিটিয়ে আহত করেছে। এভাবে কোন গণতান্ত্রিক দেশ চলতে পারে না। এটা কোন গণতন্ত্র নয় স্বৈরাতন্ত্র । এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গাজী ওয়াহিদুজ্জামান লাভলু জানান, সদর উপজের বিভিন্ন ইউনিয়ন দিয়ে হাজার হাজার নেতা-কর্মীরা এই দোয়া ও আলোচনা সভায় অংশ গ্রহনের জন্য আসছিল। কিন্তু পুলিশ তাদের পিটিয়ে শহর থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে। তাদের জন্য দুপুরের খাবার রান্না করা হয়েছিল এখন তা বিভিন্ন মসজিদে মসজিদে দিয়ে দেয়া হচ্ছে।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদুজ জামান জানান, তারা নিজেরাই কয়েকটি দলে ভাগ হয়ে নিজেদের মাঝে সংঘাত শুরু করছিল। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছি।

এর আগে সোমবার সকালে পৌর বিএনপি আয়োজিত দোয়া ও আলোচনা সভায় পৌর বিএনপির আহবায়ক শেখ শহীদুল্লাহ শহীদের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহবায়ক নাদের খান রাজু প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আব্দুছ সালাম বাতেন, যুগ্ম সম্পাদক মির্জা জহুরুল হক, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ রিয়াজ উদ্দিন রানা প্রমুখ ।

এরপরে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে জেলা যুবদল, জেলা কৃষকদল ও জেলা ছাত্রদলের একাংশ দোয়া ও আলোচনা সভা করাকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি বিশৃঙ্খল হতে থাকে। কিন্তু জেলা বিএনপির সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুলের হস্তক্ষেপে তাদের মধ্যে সমঝোতার পরে জেলা কার্যালয়েই জেলা যুবদল, জেলা কৃষকদল ও জেলা ছাত্রদলের দোয়া ও আলোচনা সভা করে। সভায় জেলা যুবদলের কো-কনভেনর মিজানুর রহমান শাহীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুল ইসলাম কিসমত। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম সাইদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক নাসির আহম্মেদ বাচ্চু, প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন জেলা ছাত্রদলের সিনি: যুগ্ম আহবায়ক আসাদুজ্জামান মিঠু।

টিএস/এমএল

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন