শিরোনাম :

বরিশালে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের বিরুদ্ধে সাজানো মামলা দিয়ে হয়রানী


সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ০৫:৫৯ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বরিশাল প্রতিনিধি: মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর, লুটপাট ও আহতর ঘটনায় দায়ের করা মামলা থেকে জামিনে বেরিয়ে বাদি ও তার নিকট আত্মীয়দের বিরুদ্ধে সাজানো মামলা দায়ের করে হয়রানী করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ফলে গত পাঁচদিন থেকে মিথ্যে মামলার আসামি হয়ে পুলিশের গ্রেফতার আতংকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে মুক্তিযোদ্ধার পরিবার ও তার স্বজনরা। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার নাঠৈ গ্রামের।

সোমবার দুপুরে ওই গ্রামের বাসিন্দা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সহকারী কমান্ডার আব্দুর রাজ্জাক চোকদার জানান, অতিসম্প্রতি তার পুত্র সরকারী কর্মচারী রাসেল চোকদার ফেসবুকে স্থানীয় মাদক বিক্রেতাদের নাম উল্লেখ করে প্রশাসনের সহযোগীতা চেয়ে একটি পোস্ট করেন।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নাম উল্লেখ করা মাদক বিক্রেতা দক্ষিণ গোবদ্ধর্ণ গ্রামের দিদারুল ইসলাম, সৈয়দ নান্টু ও জসিম শরীফের নেতৃত্বে তাদের সহযোগীরা সশস্ত্র অবস্থায় গত ৯ অক্টোবর সকালে রাসেলের ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুরসহ তাকে (রাসেল) বেদম মারধর করে আহত করে। ওই ঘটনায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থেকে আসামিরা আদালত থেকে আগাম জামিনে বেরিয়ে গত ১৯ অক্টোবর প্রধান আসামি দিদারুলের মা আসাদুজ্জামান লাল্টুর স্ত্রী রাবেয়া বেগম বাদি হয়ে থানায় হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ এনে একটি সাজানো মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় নাটকীয়ভাবে চাঁদশী ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রুহুল চোকদার, মুক্তিযোদ্ধার পুত্র যুবলীগ নেতা রাসেল চোকদার, উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক রফিক চোকদার, হাবিব চোকদার ও তপু সরদারকে আসামি করা হয়।


মুক্তিযোদ্ধা রাজ্জাক চোকদার আরও জানান, পুলিশ কোন তদন্ত না করেই গত পাঁচদিন ধরে আসামিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে। পুলিশের গ্রেফতার আতংকে তারা এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন