শিরোনাম :

অবৈধ রিক্সা মালিক-শ্রমীক সহ সহযোগীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধ


মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ১২:২৬ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

অবৈধ রিক্সা মালিক-শ্রমীক সহ সহযোগীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধ

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশালে মটরচালিত রিক্সা শ্রমীক-মালিক সংগ্রাম কমিটি ও সমাজতান্ত্রিক শ্রমীক ফ্রন্ট কর্তৃক পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে ও মটরচালিত রিক্সা শ্রমীক সহ মালিক ও সহযোগীদের দৃষ্টন্তমুলক শাস্তি এবং নগরীতে মাহেন্দ্রা চলাচল বন্ধ ৭ দফা দাবী জানিয়ে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বরিশাল মহানগর রিক্সা,ভ্যান,ঠেলাগাড়ী শ্রমীক ইউনিয়ন।আজ মঙ্গলবার (২৪ই এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর সদররোডে এ প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

বরিশাল মহানগর সভাপতি আবুল কাসেম ভাষানীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারন সম্পাদক জাতীয় পার্টি (এরসাদ) জেলা নেতা আখতার হোসেন শপ্র“,সিনিয়র সভাপতি সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ নাসির উদ্দিন,সহ-সভাপতি মোঃ কালু সরদার,মোঃ ওবায়দুল হক বাদল,নুর মোঃ হাওলাদার,কুদ্দুছ মোল্লা,মোঃ ফারুক খান,নুরু খলিফা,মোঃ জাকির হোসেন, মোঃ সেন্টু,মোঃ জলিল,মোঃ কামাল,মোঃ গিয়াস উদ্দিন,নুর আলম সহ নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।বক্তরা এসময় বলেন তাদের ৭ দফা দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজ পথে থাকার অঙ্গিকার করেন। পরে তারা নগরীতে এক বিক্ষোভ মিছিল করে। উল্লেখ্য বরিশাল নগরীতে বেশ কয়েকমাস যাবত বরিশাল নগরীতে মটরচালিত রিক্সার লাইসেন্স পাওয়ার দাবী জানিয়ে মানববন্ধন,বিক্ষোভ ভূখা মিছিল সহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছিল বরিশাল ব্যাটারীচালিত রিক্সা শ্রমীক-মালিক সংগ্রাম কমিটি ও মহানগর সমাজতান্ত্রিক শ্রমীক ফ্রন্ট। গত ১৯ই এপ্রিল লাইসেন্স পাওয়ার দাবী জানিয়ে নগরীতে বিক্ষোভ ভূখা মিছিল নিয়ে ফজলুল হক এ্যাভেনিয় সড়কে বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হলে পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ করে একাধিক শ্রমীক সদস্যকে আহত করে।

এসময় পুলিশ আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ বরিশাল মহানগর আহবায়ক প্রকৌশলী ইমরান হাবীব রুমন, জেলা সদস্য সচিব ডাঃ মনিষা চক্রবর্তী সহ ৬ জনকে গ্রেপতার করে। এঘটনায় কোতয়ালী মডেল থানার এস আই নজরুল পুলিশের উপর হামলা,সরকারী কাজে বাধা প্রদান করার অভিযোগ এনে বাদী হয়ে আটককৃর্ত ৬ জনসহ আরো অজ্ঞাতনামা ৬৬জনকে আসামী করে ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইনে দুটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পরপরই ব্যাটারীচালিত রিক্সা শ্রমীকদের গ্রেপতারের অংশ হিসাবে ২২ই এপ্রিল রোববার রাতে নগরীর ওয়ার্ডে অভিযান চালিয়ে ১১জন ব্যাটারীচালিত রিক্সা শ্রমীককে আটক করে উক্ত বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় আদালতে চালান দেওয়া হয়। এব্যাপারে বরিশালের বাম সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা বলেন রিক্সা,ভ্যান,ঠেলাগাড়ী চালক শ্রমীক ইউনিয়নের নিজস্ব চাওয়া-পাওয়ার দাবী থাকতে পারে আমরা তাদের প্রতিপক্ষনা। সব সাধারন শ্রমীকের বেচে থাকার অধিকার আছে। আমরা সিটি কর্পোরেশনের কাছে লাইসেন্স দাবী করে আন্দোলন করে আসছি আমাদের আন্দোল পুলিশের বিরুদ্বে নয়। কিন্তু আজ আমরা কি দেখতে পেলাম রিক্সা,ভ্যান,ঠেলাগাড়ী শ্রমীক ইউনিয়ন তাদের দাবী আদায়ের জন্য যতটা কথা বলার দরকার তা না বলে পুলিশের উপর হামলার বিচার চেয়ে তারা মানববন্ধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এতে কি প্রমানিত হয় পুলিশ সেদিন ব্যাটারীচালিত রিক্সা শ্রমীকদের উপর নির্বিচারে লাঠি চার্জ করার ঘটনা ভিন্ন খ্যাতে প্রবাহিত করার জন্য এদেরকে ব্যাবহার করছে।

এসএ

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন