শিরোনাম :

দীর্ঘ যানজটে দিশেহারা ঘরমুখো মানুষ


বৃহস্পতিবার, ২২ জুন ২০১৭, ০২:৪৫ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

দীর্ঘ যানজটে দিশেহারা ঘরমুখো মানুষ

ডেস্ক প্রতিবেদন: ঢাকার আব্দুল্লাহপুর থেকে গাজীপুর বাইপাস ও চৌরাস্তায় অসহনীয় যানজট এবং মানিকগঞ্জ ঘাটে দীর্ঘ অপেক্ষায় ঘরমুখো মানুষের অবস্থা দুর্বিষহ হয়ে ওঠার আশঙ্কা করছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

দীর্ঘ যানজটের রুট বলতে বোঝায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক। সাভারের বাইপাইল থেকে শুরু হয়ে যানজট ছাড়িয়ে যায় বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত।

ঢাকা থেকে উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলে বের হবার বড় পথ আমিনবাজার হয়ে সাভার। তবে পথে পথে রাস্তায় ইউটার্নের সুযোগ গাড়ির গতি কমিয়ে সৃষ্টি করে জটলা। জায়গায় জায়গায় স্পিডব্রেকার থাকলেও দূর থেকে বোঝার উপায় নেই।

সাভার বাজারে শহরতলীর বাসের তোয়াক্কাহীন এলোপাথাড়ি স্টপেজ যানজটের বড় কারণ। তবে কর্তব্যরত পুলিশ বলছে- বাস থামিয়ে রাখার কোনো সুযোগ নেই। চলন্ত অবস্থায় যেসব লোক ওঠানো দরকার তারা উঠিয়ে নিচ্ছে।

আশুলিয়া, বাইপাইল ও চন্দ্রায় এ অবস্থা আরো ভয়াবহ। ট্র্যাফিক ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা নেই বললেই চলে। ফলে যাত্রীদের অনেকটা সময় কাটাতে হয় এ পথে। চার লেনের কাজ বন্ধ থাকলেও ঝুঁকি আছে। গাড়ির জটলা মির্জাপুরে বঙ্গবন্ধু সেতুর গোড়া পর্যন্তও ছড়াতে পারে।

মানিকগঞ্জে মহাসড়কের ঝুঁকিপূর্ণ বাঁকগুলোতে ব্যবস্থা নেয়ায় দুর্ঘটনা কমলেও ঘাটে গিয়ে ফেরির জন্য যাত্রীদের অপেক্ষা করতে হচ্ছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

যানজট নিরসনে ঘাট থেকে এক কিলোমিটার পথকে ওয়ানওয়ে করা হচ্ছে। থাকছে ২৪ ঘণ্টা নৌ-পুলিশের টহল। এ ঈদে আরো নতুন করে চারটি ফেরি নামানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়ার ম্যানেজার মো. শফিকুল ইসলাম।

অন্যদিকে ঢাকা থেকে বের হবার আরেক পথ, টঙ্গী-গাজীপুর, যেখানে যানজট যাত্রীদের নিত্যসঙ্গী। উত্তরা থেকে গাজীপুরের ৩০ থেকে ৪০ মিনিটের পথ পাড়ি দিতে কখনো কখনো লাগে তিন থেকে পাঁচ ঘণ্টা।
গাজীপুরের সওজ নির্বাহী প্রকৌশলী ডি এ কে নাহীন রেজা বলেন, অনেক চেষ্টা করা হচ্ছে যানজট নিরসনের।

ভোগান্তি নিরসনে সরকারের কঠোর তদারকি খুব দরকার বলে মনে করেন বাস-মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েতুল্লাহ।
ভোগান্তি লাঘবে সচেষ্ট থাকার আশ্বাস দিয়েছেন, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আসছে ঈদে ঘরমুখো মানুষগুলো নির্ধারিত সময়ে পরিবার-পরিজনের কাছে নিরাপদে পৌঁছবেন, এমনটিই চাওয়া সবার।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন