শিরোনাম :

গাজীপুরে যৌনকর্মী ও খদ্দেরসহ ৬৭ জনকে গ্রেপ্তার


শনিবার, ১৭ জুন ২০১৭, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

গাজীপুরে যৌনকর্মী ও খদ্দেরসহ ৬৭ জনকে গ্রেপ্তার

অসামাজিক কার্যক্রমের অভিযোগে গাজীপুরে দুটি আবাসিক হোটেলে শুক্রবার অভিযান চালিয়ে ৪০ যৌনকর্মীসহ ৬৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বি এম কুদরত-ই-খুদা।

পরে এঁদের ৩৯ জনকে এক মাস করে এবং ২৮ জনকে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। পরে হোটেল দুটি তালাবদ্ধ করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বি এম কুদরত-ই-খুদা জানান, গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাহেনুল ইসলামের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মোরশেদ খান ও রাসেল মিয়া আনসার বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে জেলার আবাসিক হোটেলগুলোতে অভিযান পরিচালনা করেন। সঙ্গে তিনি নিজেও ছিলেন।

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকার রাজমণি ইন্টারন্যাশনাল নামের এক আবাসিক হোটেলে অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে ওই হোটেল থেকে ১৯ জন যৌনকর্মী ও খদ্দের এবং হোটেল কর্মচারী-দালাল ২০ জনসহ মোট ৩৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় অসামাজিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার অভিযোগে প্রত্যেককে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয় এবং হোটেলটি তালাবদ্ধ করা হয়। অভিযানের খবর পেয়ে হোটেলের মালিক বাবুল হোসেন ওরফে টুন্ডা বাবুল ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান।

চান্দনা চৌরাস্তার ভোগড়া এলাকার দক্ষিণ বাংলা আবাসিক হোটেলে অভিযান চালান ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানকালে এ হোটেল থেকে ২১ যৌনকর্মী ও খদ্দের এবং হোটেল কর্মচারী-দালালসহ মোট ২৮ জনকে আটক করা হয়। এ সময় অসামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করার অভিযোগে আটককৃতদের প্রত্যেককে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয় এবং হোটেলটিতে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়। পরে তালাবদ্ধ হোটেল দুটি জয়দেবপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ূন কবির জানান, অশ্লীলতা ও অসামাজিক কর্মকাণ্ড কোনো অবস্থাতেই বরদাশত করা হবে না। অসামাজিক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে গাজীপুর জেলা প্রশাসন নিয়মিতভাবে অভিযান পরিচালনা করবে। শর্তভঙ্গকারী আবাসিক হোটেলগুলোরর লাইসেন্স নবায়ন করা হবে না।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূনকে অভিযান না চালানোর জন্য বৃহস্পতিবার মোবাইল ফোনে হুমকি দেয় চান্দনা চৌরাস্তা এলাকার রাজমণি ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলের মালিক। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

জিডির সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকার রাজমণি ইন্টারন্যাশনাল নামের এক আবাসিক হোটেলের মালিক পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুর জেলা প্রশাসকের দাপ্তরিক মোবাইল নম্বরে ফোন দেন। এ সময় ওই ব্যক্তি তাঁর হোটেলে কোনো নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে অভিযান পরিচালনা না করার জন্য বলেন।

অভিযান পরিচালনা করা হলে জেলা প্রশাসককে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন ওই ব্যক্তি। এ ঘটনায় গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন