শিরোনাম :

মেয়র আনিসুল হকের মরদেহ ঢাকায়


শনিবার, ২ ডিসেম্বর ২০১৭, ০১:২৬ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

মেয়র আনিসুল হকের মরদেহ ঢাকায়

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের মরদেহ ঢাকায় এসে পৌঁছেছে।

আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে তাঁর মরদেহ ঢাকায় হযরত শাহজালাল (রহ.) বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। এ সময় সেখানে আনিসুল হকের ভাই সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল শফিউল হক উপস্থিত ছিলেন।

এর আগ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের মরদেহবাহী বিমান সিলেটে এসে পৌঁছেছে।  আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মেয়রের মরদেহ বহনকারী যাত্রীবাহী বিমানটি সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়।

সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের স্টেশন ম্যানেজার জিল্লুর রহমান জানান, কিছু সময় যাত্রা বিরতির পর বিমানটি দুপুর সোয়া ১টার দিকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে।

এর আগে শুক্রবার বাদ জুমা আনিসুল হকের প্রথম
জানাজা লন্ডনের রিজেন্ট পার্ক সেন্ট্রাল মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়।  জানাজায় বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি, কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও শুভানুধ্যায়ীরা অংশ নেন।  পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমও জানাজায় উপস্থিত ছিলেন।

বিমানবন্দর থেকে আনিসুল হকের মরদেহ তাঁর বনানীর বাসায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে তিন দিনের শোক পালন করছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। শুক্রবার  থেকে এই শোক পালন শুরু হয়েছে, যা চলবে রবিবার (৩ ডিসেম্বর) পর্যন্ত। ওই দিন ডিএনসিসির অফিস বন্ধ থাকবে।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা এ এস এম মামুন এ তথ্য জানিয়েছেন।

এ দিকে আনিসুল হকের মরদেহ দুপুরে দেশে আনা হবে। তার মরদেহ বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট লন্ডনের স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ৮টার (বাংলাদেশ সময় রাত ২টা) দিকে হিথ্রো বিমানবন্দর ত্যাগ করেছে। জ শনিবার বেলা ১টার দিকে ফ্লাইটটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবে।

তার মরদেহ দেশে পৌঁছানোর পর সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বিকেল ৩টা থেকে আর্মি স্টেডিয়ামে রাখা হবে। সেখানেই বিকেল ৪টায় আসরের নামাজের পর মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

২৯ জুলাই নাতির জন্ম উপলক্ষে ব্যক্তিগত সফরে সপরিবারে যুক্তরাজ্য যান আনিসুল হক। সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে ১৩ আগস্ট তাকে লন্ডনের ন্যাশনাল নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার মস্তিষ্কে প্রদাহজনিত রোগ ‘সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিস’ শনাক্ত করেন চিকিৎসকরা।

এরপর তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। ধীরে ধীরে অবস্থার উন্নতি ঘটলে তাকে গত ৩১ অক্টোবর আইসিইউ থেকে রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারে স্থানান্তর করা হয়। গত সোমবার অবস্থার অবনতি হলে তাকে রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টার থেকে পুনরায় আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। প্রায় সাড়ে তিন মাস চিকিৎসাধীন থাকার পর গত বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) মারা যান তিনি।

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন