শিরোনাম :

লেকহেড গ্রামার স্কুলের অধ্যক্ষ হতে হবে সেনা কর্মকর্তা


মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:০৫ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

লেকহেড গ্রামার স্কুলের অধ্যক্ষ হতে হবে সেনা কর্মকর্তা

ডেস্ক প্রতিবেদন: জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে রাজধানীর লেকহেড গ্রামার স্কুলের ধানমণ্ডি ও গুলশান শাখা খুলে দিতে হাইকোর্টের দেওয়া রায় সাত দিনের জন্য স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ।

সাত দিনের মধ্যে স্কুলটির নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠনের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। সেইসঙ্গে ম্যানেজিং কমিটিতে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারকে সভাপতি ও স্কুলের অধ্যক্ষ হিসেবে সেনাবাহিনীর কোনো কর্মকর্তাকে রাখতে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্‌হাব মিঞার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। সাত দিন পর থেকে নতুন কমিটি স্কুলের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন লেকহেড স্কুলের পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম।

আদালতে লেকহেড স্কুলের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ, ব্যারিস্টার আখতার ইমাম ও ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

গত ১৪ নভেম্বর লেকহেড গ্রামার স্কুলের ধানমণ্ডি ও গুলশান শাখা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে খুলে দিতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। পরে এই আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষ।

এর আগে ৬ নভেম্বর ধানমন্ডি ও গুলশানের দুটি শাখাসহ লেকহেড স্কুলের সব শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ করার নির্দেশ দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব সালমা জাহানের সই করা চিঠিতে ঢাকা জেলা প্রশাসককে এ নির্দেশ দেওয়া হয়। চিঠিতে বলা হয়, এই প্রতিষ্ঠানটি সরকারের অনুমোদন নেয়নি। এ ছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি ধর্মীয় উগ্রবাদ, উগ্রবাদী সংগঠন সৃষ্টি, জঙ্গি কার্যক্রমে পৃষ্ঠপোষকতাসহ স্বাধীনতার চেতনাবিরোধী কর্মকাণ্ডে যুক্ত বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন