শিরোনাম :

মালিবাগ অগ্নিকাণ্ডে ৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির দাবি


বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৪৯ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

মালিবাগ অগ্নিকাণ্ডে ৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির দাবি

ঢাকা, ১৮এপ্রিল(বাংলাপ্রেস): আজ বৃহস্পতিবার সকালে মালিবাগ কাঁচাবাজারে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত পাঁচ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছে মালিবাগ বাজার বণিক সমবায় সমিতির নেতৃবৃন্দ।

আজ সকালে সমিতির কার্যকারী কমিটির সদস্য মোহাম্মদ নুরুল হক নুরু গণমাধ্যমকে বলেন, বাজারের ২৬০টি দোকানের মধ্যে কোনটিই আর অবশিষ্ট নেই। মাছ, মাংস, চাল, ডালসহ সব পুড়ে ছাই হয়েছে। বাজারে থাকা গরু-ছাগলও পুড়ে গেছে। আমাদের সমিতি থাকা টাকা পয়সাও পুড়েছে। প্রতিটি দোকানেই কমবেশি নগদ টাকাও ছিল। কোনো দোকানেই ৫০ হাজার টাকার কম জিনিস ছিল না। সব মিলিয়ে অন্তত পাঁচ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করছি।

ফায়ার সার্ভিসের উপ পরিচালক (অপারেশন ও মেইন্টেনেন্স) দিলীপ কুমার ঘোষ বলেন, আগুনের ঘটনায় কোন হতাহত হয়নি। আমরা অনেককেই উদ্ধার করতে সক্ষম হই। তদন্ত ছাড়া ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বলা যাবে না। তবে অন্তত ৪০টি ছাগল পুড়েছে। বেশ কিছু দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছ। আগুনের কারণ তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।

এর আগে, ভোর সাড়ে ৫টার দিকে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১৩টি ইউনিটের একঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

এসব দোকান দিয়ে যাদের রুটি-রুজি, তাদের অনেককেই হয়তো পথে বসতে হতে পারে। অগ্নিকাণ্ডের পর আবার নিজেকে গুছিয়ে উঠতে পারবেন কিনা, এসব ভেবেই কান্নায় ভেঙে পড়ছেন অনেক দোকানি।

ছোট-বড় সবমিলিয়ে প্রায় দুই শতাধিকের বেশি দোকান রয়েছে মালিবাগের কাঁচাবাজারে। প্রায় সব দোকানেই আগুনের স্পর্শ লেগেছে। ফলে অধিকাংশ দোকানের মালামাল পুড়ে ছাই হয়েছে।

দোকানিরা বলছেন, বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, বাজারের পশ্চিম পাশের মুদির দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত। সঙ্গে সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসকে ফোনে জানানো হলে, দ্রুত ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে।

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন