শিরোনাম :

জুয়েলারি দোকান অনির্দিষ্টকাল বন্ধের হুঁশিয়ারি


মঙ্গলবার, ৩১ মে ২০১৬, ০৭:২৮ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

জুয়েলারি দোকান অনির্দিষ্টকাল বন্ধের হুঁশিয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী অর্থ বছরের বাজেটে জুয়েলারি খাতে ১.৫ শতাংশ মূসক নির্ধারণ না করলে আগামী ৪ জুন থেকে সারা দেশের জুয়েলারি দোকান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করার হুমকি দিয়েছেন বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি।

মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি কাজী সিরাজুল ইসলাম হুঁশিয়ারি দেন।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা শান্তিপ্রিয় জুয়েলারি ব্যবসায়ী। আমরা সরকারের কোনো পদক্ষেপের বিরুদ্ধে নই। তবে তা হতে হবে সহনীয়। জুয়েলারি ব্যবসায়ীরা এদেশের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি কিন্তু জুয়েলারীর উপর ৫% ভ্যাট আরোপ করার জন্য শুধুমাত্র ঢাকা শহরের ৪০টি জুয়েলারি দোকান বন্ধ হয়ে গেছে। ব্যবসায়ীরা এখন পরিবার নিয়ে চরম দুর্বিষহ জীবন-যাপন করছে।

তাই তিনি জুয়েলারি খাতে বর্তমানে আরোপিত মোট বিক্রয়ের উপর ৫% এর স্থলে ১.৫% মূসক নির্ধারণ করার জন্য প্রধামন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এসময় তিনি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নিম্নলিখিত কর্মসূচি ঘোষণা করেন, আগামী ৪ জুন থেকে সারা দেশের জুয়েলারি দোকান অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ থাকবে। ৫ জুন কেন্দ্রেীয় কর্মসূচি হিসেবে জাতীয় প্রেসক্লাবসহ সারাদেশের ইউএনও ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানবন্ধন কর্মসূচি।

বাজুস সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক খান বলেন, ২০১৫ সালের ৪ জুন জুয়েলারি পণ্য বিক্রয় মূল্যের ওপর মূসক ৩ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে ৫ শতাংশ করে। যদিও পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে মূসক হার মাত্র ১ শতাংশ। দুবাই এ মূসক নেই। মূসক বৃদ্ধির ফলে দেশের স্বর্ণ ক্রেতা ৯০ শতাংশ ধনী এসব দেশ থেকে স্বর্ণ কিনেছে।

তিনি বলেন, গত ৫ থেকে ৬ বছর আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণ ও রৌপ্যের লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধির কারণে এখাত এমনিতে ক্ষতিগ্রস্ত। তারপর মূসক বৃদ্ধি। ভারত ও দুবাই এর ভিসা সহজলভ্য হওয়ায় ধনীদের অধিকাংশ এ দু’দেশ থেকে স্বর্ণ ক্রয় করে। আর দু’তিন বছর এই মূসক থাকলে এ শিল্প ধ্বংস হয়ে যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সভাপতি এম এ ওয়াদুদ খান, সিনিয়র সহ-সভাপতি জিসি মালাকার প্রমুখ।

এমএল

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন