শিরোনাম :

কমওয়ার্ডে ১৭টি ক্যাটাগরিতে ৭৩ সৃজনশীল বাণিজ্যিক ক্যাম্পেইন পুরস্কৃত


সোমবার, ২১ আগস্ট ২০১৭, ০৩:৩৯ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

কমওয়ার্ডে ১৭টি ক্যাটাগরিতে ৭৩ সৃজনশীল বাণিজ্যিক ক্যাম্পেইন পুরস্কৃত

ডেস্ক প্রতিবেদন: মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ এর সৌজন্যে কমওয়ার্ডে ১৭টি ক্যাটাগরিতে মোট ৭৩টি সৃজনশীল বাণিজ্যিক যোগাযোগ ক্যাম্পেইন এবং বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইনকে পুরস্কৃত করা হয়।

১৯ আগস্ট সন্ধ্যায় ঢাকার লা মেরিডিয়েন হোটেলে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে বিজয়ী বিজ্ঞাপন ও বিপণন সংস্থা এবং প্রোডাকশন হাউজগুলোকে এ স্বীকৃতি প্রদান করা হয়।

কানস লায়ন্সের সাথে অংশীদারিত্বে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম ২০০৯ সাল থেকে এ পুরস্কার প্রদান করে আসছে। এবছর কমওয়ার্ডের পৃষ্ঠপোষক ছিল দ্য ডেইলি স্টার। গ্র্যান্ড প্রি, গোল্ড এবং সিলভার এ তিনটি স্তরে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এ বছর কমওয়ার্ডের মনোনয়ন হিসেবে বিজ্ঞাপন সংস্থা, প্রোডাকশন হাউজ এবং বিভিন্ন সংস্থার সৃজনশীল বিভাগ মিলিয়ে মোট ৪৩টি প্রতিষ্ঠান থেকে সর্বমোট ৩৫৫টি বিজ্ঞাপন জমা পড়ে। শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞাপন-বিপণন ও সৃজনশীল যোগাযোগ বিশেষজ্ঞগণের সমন্বয়ে গঠিত একটি বিচারক প্যানেল দিনব্যাপী এক সেশনের মাধ্যমে বিজয়ী ক্যাম্পেইনগুলোকে নির্বাচিত করেন। ১৭টি ক্যাম্পেইন গ্র্যান্ড প্রি, ৩৭টি ক্যাম্পেইন গোল্ড এবং ১৯টি ক্যাম্পেইন সিলভার পুরস্কার লাভ করে।

গতছর কমওয়ার্ডে সর্বমোট ২৫টি ক্যাটাগরি ছিল। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে এবছর ১১টি ক্যাটাগরি বাদ এবং নতুন তিনটি ক্যাটাগরি সংযোগ করা হয়। নতুন তিনটি ক্যাটাগরি হলো পি আর, বেস্ট ইউজ অফ আইডিয়া, এবং বেস্ট ক্যাম্পেইন বাই নিউ এজেন্সি। নতুন সংযুক্ত ক্যাটাগরিগুলো ছোট এবং নব্য বিজ্ঞাপন সংস্থাগুলোকে তাদের প্রতিভা প্রকাশের সুযোগ করে দেয়।

এবার কমওয়ার্ডে সর্বাধিক পুরস্কার পায় ‘গ্রামীণফোন একাত্তরের কথা’ বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইনটি। এটি বেস্ট ইউজ অব আইডিয়া তে গ্র্যান্ড প্রি, আরডিসি তে গোল্ড এবং ডিরেকশন ফর টিভিসি ভিডিওতে গোল্ড পুরস্কার লাভ করে। এছাড়া ইন্টিগ্রেটেড ক্যাম্পেইন ক্যাটাগরিতে এশিয়াটিক মাইন্ডশেয়ার/এশিয়াটিক থ্রিসিক্সটি এর ‘গ্রামীণফোন সপ্ন যাবে বাড়ি’ ক্যাম্পেইনটি গ্র্যান্ড প্রি পুরস্কার লাভ করে।

বিপণন ও বিজ্ঞাপন শিল্প সহ অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৫০০ অতিথি এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ওই একই ভ্যেনুতে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয় সপ্তম কমিউনিকেশন সামিট। কমিউনিকেশন সামিটে বিশ্ববরেণ্য তিনজন কি-নোট স্পিকার বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও সামিটে দুইটি প্যানেল আলোচনা, দুইটি ওয়ার্কশপ, দুইটি এজেন্সি কেইস স্টাডি এবং কানস লায়ন্সের বিশেষ প্রদর্শনীর আয়োজোন ছিল।

বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের উদ্যোগে, কানস লায়ন্স এর সাথে অংশিদারিত্বে এবছর কমওয়ার্ড আয়োজিত হয় মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ এর সৌজন্যে। এ আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক ছিল দ্য ডেইলি স্টার। এ আয়োজনে আরও ছিলো সিন্ডিকেট পার্টনার র‌্যাংগস তোশিবা, ইভেন্ট পার্টনার লা মেরিডিয়েন, স্ট্র্যাটেজিক এলায়েন্স রোয়ারিং লায়ন্স, নলেজ পার্টনার মার্কেটিং সোসাইটি অব বাংলাদেশ, এয়ারলাইন্স পার্টনার ইতিহাদ এয়ারওয়েজ, লাইফস্টাইল পার্টনার এডভান্স ডেভেলপমেন্ট টেকনোলজিস, আইটি পার্টনার আমরা, পি আর পার্টনার মাস্টহেড পি আর, টিভি পার্টনার একাত্তর টিভি, রেডিও পার্টনার রেডিও টুডে, সোশ্যাল মিডিয়া পার্টনার ওয়েবেবল, অডিও ভিজুয়াল পার্টনার আতশ, ডিজিটাল কন্টেন্ট পার্টনার ফায়ারফ্লেম মিডিয়া এবং ভিজুয়াল কন্টেন্ট পার্টনার তরুণ।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন