শিরোনাম :

‘আয়কর দিয়ে দেশের অর্থনীতি সমৃদ্ধ করুন’ 


বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর ২০১৭, ০৪:৫৩ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

‘আয়কর দিয়ে দেশের অর্থনীতি সমৃদ্ধ করুন’ 

কক্সবাজার প্রতিনিধি: সামর্থ্যবান ব্যক্তিদের আয়কর দিয়ে দেশের অর্থনীতি সমৃদ্ধ করার অহবান জানিয়েছেন কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল।

তিনি বলেন, আয়কর দেশের উন্নয়নের অন্যতম চালিকা শক্তি। আয়করদাতারা দেশের সম্পদ। আমরা আয়কর না দিলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম উন্নয়ন বঞ্চিত হবে। দেশের উন্নয়নের যাত্রায় নিজেকে শরিক করতে যে যার মতো আয়কর দিতে অভ্যস্ত হই।
কক্সবাজারে ৫ দিনব্যাপী আয়কর মেলার উদ্বোধনী সভায় এমপি কমল প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় শহরের খুরুশকুল সড়ক সংলগ্ন এস.কে টাওয়ারস্থ আয়কর অফিস প্রাঙ্গনে মেলা উদ্বোধন করা হয়। বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে ২০১৭ সালের আয়কর মেলার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি। এরপর আয়োজিত সভায় তিনি বক্তব্য রাখেন।

সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি বলেছেন, যখন বাংলাদেশ সৃষ্টি হয় তখন পাকিস্তানীরা আমরা না খেয়ে থাকব বলে প্রচার করে। কিন্তু অল্প সময়ে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছে। পৃথিবীর ১৯৪টি দেেেশর মধ্যে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের তালিকায়। মানুষের মাঝে আয়কর প্রদানে সচেতনা বেড়েছে। আমাদের রিজার্ভ বেড়েছে। ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত আয়ের দেশে পরিণত হবে।

কর অঞ্চল-৪ এর অতিরিক্ত কর কমিশনার মুহাম্মদ মফিজ উল্যাহর সভাপতিত্বে আয়কর মেলার প্রথম দিনে বিশেষ অতিথি ছিলেন আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন, কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম রহিমুল্লাহ, কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর সভাপতি আবু মোরশেদ চৌধুরী খোকা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রুহুল কুদ্দুস, কক্সবাজার কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট ছৈয়দুল হক। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী কর কমিশনার জ্ঞানেন্দ্র বিকাশ চাকমা।

এর আগে মেলায় আগত অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে বরণ করেন কক্সবাজার আয়কর অফিসের সহকারী কর কমিশনার মোঃ জাকারিয়া হোসেন, ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ আমান উল্লাহ, গোলাম কিবরিয়াসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের লোকজন। অতিথিদের সারিবদ্ধ হয়ে অভ্যর্থনা জানায় কক্সবাজার শহরের বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

কক্সবাজার আয়কর অফিসের সহকারী কর কমিশনার মোঃ জাকারিয়া হোসেন জানান, ৫ নভেম্বর পর্যন্ত (চার দিন) মেলা চলবে কক্সবাজার সার্কেল-৮৪, ৮৫ ও ৮৬ তে। ৫ নভেম্বর সার্কেল-৮৭ টেকনাফ ও রামু উপজেলায়। ৬ নভেম্বর সার্কেল-৮৮ চকরিয়াতে আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হবে। মেলায় তথ্য সেবা প্রদান, আয়কর রিটার্ন পূরণে সহায়তা, কর প্রদানের জন্য চালান সরবরাহ, আয়কর রিটার্ন গ্রহণ, ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন/রি-রেজিস্ট্রেশন এবং আনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিলের নির্দেশনা প্রদান করা হবে। তিনি জানান, প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে বিকাল পর্যন্ত করদাতা ও সর্ব সাধারণের জন্য মেলা উম্মুক্ত থাকবে।

এদিকে কক্সবাজার আয়কর অফিসের দেয়া তথ্য মতে, ২০১৬-২০১৭ অর্থ সালে ১০১৮৯ রিটার্নের বিপরীতে ৭৪ কোটি ৪ লাখ টাকা আয়কর আদায় হয়েছে। যা গেল গেল অর্থ বছরের চেয়ে প্রায় ৯ কোটি টাকা বেশী। এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬৫ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। জেলায় মোট করদাতা সংখ্যা ১৭ হাজার ৬২২ জন।

২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরে কর অঞ্চল-৪ এর অন্তর্ভুক্ত কক্সবাজার এর ৫টি সার্কেলে মোট আয়কর আদায় হয়েছিল ৬৫ কোটি ১১ লাখ টাকা। ওই বছরের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৫৮ কোটি ৪ লাখ টাকা। এর আগের অর্থ বছর ৪২ কোটি ৯৫ লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আয়কর আদায় হয় ৪৬ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। মূলতঃ করদাতাদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পাওয়ায় দিন দিন আয়কর আদায় বাড়ছে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

পরিদর্শী রেঞ্জ-৪ (কক্সবাজার) ৫টি সার্কেলের মধ্যে সার্কেল-৮৪, ৮৫ ও ৮৬ (বৈতনিক শাখা) কক্সবাজার শহরের খুরুশকুল রোড় সংলগ্ন এস.কে টাওয়ারে। সার্কেল-৮৭ টেকনাফের বিজিবি রোড়স্থ জাকারিয়া ম্যানশনে এবং সার্কেল-৮৮ চকরিয়া থানা রোড় এলাকার প্রমিলা ভবনে অবস্থিত।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন