শিরোনাম :

‘ জ্বালানি খাতে এনার্জি চার্টার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে’


বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৭, ০৪:৩৪ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

‘ জ্বালানি খাতে এনার্জি চার্টার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে’

ডেস্ক প্রতিবেদন: বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, জ্বালানি খাতের বিনিয়োগ নীতিমালা সুষম করতে আন্তর্জাতিক এনার্জি চার্টার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে। জ্বালানি নিরপত্তা নিশ্চিত করণে বহুজাতিক নীতিমালা তৈরি ও সমন্বয় করতেও এ সংস্থার সহায়ক ভূমিকা রাখার সুযোগ রয়েছে। এ সময় তনি জ্বালানি ও জ্বালানি সহযোগীতায় সহাবস্থানের গুরুত্ব তুলে ধরেন।

প্রতিমন্ত্রী, আজ তুর্কেমেনিস্তানের রাজধানি আশাগাবাদে আন্তর্জাতিক এনার্জি চার্টারের ২৮তম সভার মিনিস্টারিয়াল সেশনে বক্তব্যকালে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জলবিদ্যুতের জন্য বাংলাদেশ ভূটান-ইন্ডিয়া-নেপাল নেটওয়ার্ক কার্যকরি করতে বাংলাদেশ কাজ করছে। তাপি পাইপলাইন প্রকল্প এ অংশ গ্রহণের আগ্রহ প্রকাশ করে বলেন আঞ্চলিক বন্ধন মজবুদ করতে এনার্জি চার্টার অতুলণীয় অবদান রাখতে পারে। ঝুঁকি বিহীন সুষম জ্বালানি সরবরাহে এ সংস্থার সহযোগিতা নিয়ে টেকসই জ্বালানি ব্যবস্থাপনা তৈরী করা সম্ভব। এ সময় বাংলাদেশের জ্বালানি খাতের উন্নতিকল্পে প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সহযোগিতা কমনা করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তহবিল গঠণ, সক্ষমতাবৃদ্ধি ও রেগুলেটারি ক্লাইমেট সৃজন করে অভিজ্ঞতা বিনিময়ে এনার্জি চার্টার সকলের জন্য একটি ফ্লাটফরম তৈরী করে দিতে পারে।

পারস্পারিক সহযোগিত বৃদ্ধির লক্ষ্যে নিয়ে অনুষ্ঠিত ২৮তম সম্মেলনে বিভিন্ন দেশের জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের প্রধান ও তাদের প্রতিনিধি, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহের প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেছেন। সম্মেলনে অন্যান্যের মঝে ২৮তম সম্মেলনের সভাপতি মাকসাত এম. বাবায়েভ ও মহাসচিব ড. অরবান রুসনাক বক্তব্য রাখেন।

পরে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ আন্তর্জাতিক এনার্জি চার্টারের মহাসচিব ড. আরবান রুসনাকের সাথে এক দ্বি-পাক্ষিক সভায় মিলিত হন। সভায় বাংলাদেশ জ্বালানি নিরাপত্তা, এলএনজি টার্মিনাল গভীর সমুদ্র বন্দর, কোল টার্মিনাল, পাইপলাইন প্রকল্প, রিফাইনারি, বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও বিতরণ ব্যবস্থার উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করেন এবং মানবসম্পদ উন্নয়নে সহযোগিতা কমনা করেন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন