শিরোনাম :

এসডিজি অর্জনে বিডা জেলা পর্যায়ে বিনিয়োগ


শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০২:২০ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

এসডিজি অর্জনে বিডা জেলা পর্যায়ে বিনিয়োগ

ডেস্ক প্রতিবেদন: বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) অর্জনে দেশের সকল জেলার জন্য বেসরকারি খাতে উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন করবে।

বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম শুক্রবার  বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে সকল জেলার সম্ভাবনাময় খাতসমূহ খুঁজে বের করতে এবং উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে জনগণকে সম্পৃক্ত করতে বিভাগীয় পর্যায়ে কর্মশালা আয়োজনের মাধ্যমে বেসরকারি খাতে উন্নয়ন পরিকল্পনার কাঠামো প্রস্তুত করেছি।’

তিনি বলেন, বিডা এরই মধ্যে উন্নয়ন লক্ষ্য ও বিনিয়োগকে তৃণমূল পর্যায়ে উদ্বুদ্ধ করতে ‘এসডিজি’র স্থানীয়করণ’ নামে একটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

আমিনুল ইসলাম বলেন, ব্যবসায়িক সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে এবং সকল জেলার সম্ভাবনাময় খাত চিহ্নিত করতে বিডা সকল বিভাগে কর্মশালার আয়োজন করেছে।

তিনি বলেন, প্রত্যেক জেলায় কিছু সম্ভাবনাময় খাত আছে, যেগুলো দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখতে পারে। বিডা এসব সম্ভাবনাময় খাত খুঁজে বের করে দেশের মূলধারার অর্থনীতির সঙ্গে যুক্ত করতে চায়।

বিডা প্রধান বরেন, ‘আমরা বিনিয়োগ পরিকল্পনা প্রণয়নে কাজ করছি। আমরা সকল জেলার জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে এ মাসের মধ্যে এ প্রণয়ন প্রক্রিয়া শুরু করবো।’

পরিকল্পনা প্রণয়নের পর বিডা প্রতি বছর এটি হালনাগাদ করবে বলে জানান তিনি। এসডিজি অর্জনে সামাজিক উদ্যোগ উৎসাহিত করা ছাড়াও বিডার মূল লক্ষ্য হলো- বিনিয়োগ ও উন্নয়ন কর্মকান্ডে জনগণকে সম্পৃক্ত করা।

জাতিসংঘের নতুন টেকসই উন্নয়ন কর্মসূচির অংশ হিসেবে দারিদ্র্য নিরসন ও সকলের জন্য সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে ২০১৫ সালে ১৭টি লক্ষ্য ও ১৫৯টি সহায়ক টার্গেট নির্ধারণ করে। মূল ১৭টি লক্ষ্যের ৮নম্বর লক্ষ্য হলো- সকলের জন্য সার্বিক ও টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, কর্মসংস্থান ও ভদ্রোচিত কাজ নিশ্চিতে সহযোগিতা করা।

আমিনুল বলেন, বিডা বিনিয়োগ উদ্বুদ্ধকরণের মাধ্যমে দারিদ্র নিরসন ও সকলের জন্য শিক্ষা নিশ্চিতে কাজ করছে, যা কর্মসংস্থান সুবিধা ও মাথা পিছু আয় বাড়াবে এবং দেশে একটি সমতাপূর্ণ সমাজ বিণির্মাণে সহয়ক হবে।

তিনি বলেন, বিডা ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজিস অর্জনে স্থানীয় ও বিদেশি বিনিয়োগকারী উভয়ের জন্য ওয়ান-স্টপ-সার্ভিস সেন্টারসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে।

তিনি বলে, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ভিশন-২০২১ ও ভিশন-২০৪১ এসডিজিস বাস্তবায়নের সোপান হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন