শিরোনাম :

মাছ উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ


রবিবার, ১৫ জুলাই ২০১৮, ১২:০৮ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

মাছ উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ

ঢাকা: সম্প্রতি দেশের পুকুর ও খালগুলোতে মাছ চাষে নীরব বিপ্লব ঘটেছে। বাংলাদেশে মাছের উৎপাদন বেড়েছে ২৫ গুণ। গত তিন দশকে মাছের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের এই অর্জনকে স্বীকৃতি দিয়েছে বিশ্ব। মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশ চতুর্থ অবস্থানে আছে। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) প্রকাশিত প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানা গেছে। দেশে উৎপাদিত মাছের ৭৫ শতাংশ এখন বাণিজ্যিকভাবে বাজারজাত করছেন মাছ চাষীরা। ইন্টারন্যাশনাল ফুড পলিসি রিসার্স ইনস্টিটিউটের (আইএফপিপআরআই) এর সর্বশেষ সমীক্ষায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আইএফপিআরআই এর সমীক্ষায় বলা হয়, বাড়তি চাহিদা, প্রযুক্তির উন্নয়ন, যোগাযোগ অবকাঠামো, লাখ লাখ পুকুর মালিক এবং ছোট ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগে বাংলাদেশে মাছের উৎপাদন দ্রুতগতিতে বেড়েছে। বাংলাদেশে প্রধানত নিজেদের পারিবারিক প্রয়োজনে মাছ চাষের ধারণা এখন বদলে গেছে। ভোক্তাদের এখন নিজের পুকুরের মাছ খাওয়ার সঙ্গে বাজার থেকে মাছ কেনার প্রবনতাও বেড়েছে বলে উল্লেখ রয়েছে ওই সমীক্ষায়।

সমীক্ষায় বলা হয়, আগে গ্রামের মাছ চাষীরা স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছে মাছ বিক্রি করলেও এখন তারা তাদের উৎপাদিত মাছের দুই তৃতীয়াংশ ছোট বড় শহরে আড়তদারদের কাছে বিক্রি করছেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সূত্রে জানা গেছে, ২০০৮-০৯ অর্থবছর দেশে মাছ উৎপাদন হয়েছিল ২৭ লাখ ৪১ হাজার মেট্রিক টন। সরকারের যথাযথ উদ্যোগে ২০১৬-১৭ অর্থবছর ৬৮ হাজার ৩০৫ মেট্রিক টন মৎস্য ও মৎস্যজাত পণ্য রফতানি করে আয় করেছে ৪ হাজার ২৮৭ কোটি টাকা। সরকাররে উন্নয়নমুখী নানা উদ্যোগ ও সেবা দেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে মাছ উৎপাদন ৩৮ লাখ ৭৮ হাজার মেট্রিক টনে উন্নীত হয়েছে। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে মাছ উৎপাদন হয়েছে ৪০ লাখ ৫০ হাজার টন। মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরেরই বাংলাদেশ মাছ উৎপাদনে স্বয়ংসর্ম্পূণতা অর্জন করেছে এমন ঘোষণা আসবে।

মৎস্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদনে মৎস্যখাতের অবদান ৩ দশমিক ৬৯ শতাংশ। মোট কৃষি আয়ের ২২ দশমিক ৬ শতাংশই মৎস্য খাত থেকে। দেশের রফতানি আয়ের ৪ শতাংশের বেশি আসে মৎস্য খাত থেকে। এ ছাড়াও দৈনন্দিন খাদ্যে প্রাণিজ আমিষের প্রায় ৬০ শতাংশ জোগান দেয় এই মৎস্য খাত।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ সরকারের ভিশন ২০২১-এ দেশের মাছের উৎপাদন ৪৫ লাখ মেট্রিক টন নির্ধারণ করা হয়েছে যা বর্তমান উৎপাদনের চেয়ে ১০ লাখ মেট্রিক টন বেশি। বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্য মতে, দেশের প্রায় ১ কোটি ৭০ লাখ মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে মৎস্য খাতের সঙ্গে সম্পৃক্ত যা মোট জনসংখ্যার ১১ শতাংশ। বছরে প্রায় ৬ লাখ নতুন কর্মসংস্থান হচ্ছে এই সেক্টরে।

সরকার ২০১৯ সালের মধ্যে দেশকে মাছ চাষে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে বর্তমান উৎপাদন ৩৮ লাখ টন থেকে বাড়িয়ে ৪২ লাখ টনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। এ লক্ষ্যে মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট ও মৎস্য অধিদফতর যৌথভাবে কাজ করছে। ইতিমধ্যেই বাংলাদেশ মাছে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো বিবিএস সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬-১৭ অর্থবছরেও দেশে লবণাক্ত পানিতে মাছ উৎপাদন হয়েছে ছয় লাখ ৯৭ হাজার টন। আর মিঠা পানির মাছ উৎপাদন হয়েছে ৩৩ লাখ ২০ হাজার টন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন