শিরোনাম :
   ১০টি ভবনের নকশা অনুমোদন দিল কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ    গণমানুষের সংগঠনে রূপান্তর করতে মাঠে ময়দানে ঝাঁপিয়ে পড়ুন    উসমানের বোলিং তোপে ব্যাটিং বিপর্যয়ে শ্রীলঙ্কা    গৌরনদী ‍উপজেলায় শিক্ষার্থীদের হাত ধোঁয়া প্রদর্শন    বরিশালে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের বিরুদ্ধে সাজানো মামলা দিয়ে হয়রানী    শেষ হলো ইলিশ শিকারের উপর নিষেধাজ্ঞা    উজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত শুরু    বরিশালে জেলা আ. লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত    স্তন কর্তন, ধর্ষণ লজ্জাস্থানে কাঠ গুঁজে রোহিঙ্গা নারীদের রোমহর্ষক নির্যাতন     কিশোর বাতায়ন, এইচ ডি মিডিয়া ক্লাব ও বরিশাল ব্র্যান্ডিং বিষয়ক সংবাদ সম্মেলন

চীনা রাষ্ট্রপতির আগমন


শুক্রবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৬, ১২:২৮ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

চীনা রাষ্ট্রপতির আগমন

দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ সফরে এসেছেন গণচীনের কোন রাষ্ট্রপ্রধান। ১৯৮১ সালে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জানাজায় অংশগ্রহণ করতে প্রথম ও সর্বশেষ স্বাধীন বাংলাদেশে আসেন কোন চীনা প্রধান। এর পর আজ সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে ঢাকা বিমানবন্দরে নেমেছেন চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং। তাঁকে স্বাগত জানিয়েছেন আমাদের মহামান্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এ্যাডভোকেট।

২ দিনের সংক্ষিপ্ত সফরে কমপক্ষে ২০ বিলিয়ন ডলারের ২৫টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে দুই পক্ষের মধ্যে; যার মধ্যে আছে অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়ন, ব্যবসায়িক বিনিয়োগ, সামরিক সহায়তা, গোয়েন্দা তথ্য বিনিময়।

চট্টগ্রামে বিশেষ শিল্পাঞ্চল গড়ে তুলে তাতে ভারী শিল্প স্থাপনে ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করেছে চীনা প্রতিষ্ঠান চায়না কমিউনিকেশন কনস্ট্রাকশন কোম্পানি এবং চায়না হারবার ইনিঞ্জিয়ারিং কোম্পানি। আমাদের অবকাঠামোগত দুর্বলতা বরাবরই শিল্প-বিনিয়োগের প্রতিবন্ধকতা হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। সুখের বিষয়, এই দুর্বলতা দূর করতে ভারতের পাশাপাশি ভূমিকা রাখবে গণচীনও। কিন্তু আমাদেরকে খেয়াল রাখতে হবে, এই সহযোগিতা যেন সুলভ হয় আমাদের জন্য। কোনভাবেই অতিরিক্ত খরচ করে ঋণের বোঝা যেন না বাড়ে সেটা খেয়াল রাখা জরুরী।

আরেকটি বিষয়ে খুবই সতর্ক পদক্ষেপ কাম্য-- আন্তর্জাতিক যুদ্ধপ্রস্তুতি। যেহেতু ভারত আমাদের সবচেয়ে কাছের বিশ্বস্ত বন্ধু হিসেবে স্বীকৃত, আমাদের উচিৎ হবে সামরিক চুক্তিতে বিষয়টিকে মাথায় রাখা।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন