শিরোনাম :

বেসরকারি আইসিটি শিক্ষকদের শিক্ষা ভবন ঘেরাও


বৃহস্পতিবার, ২ জুন ২০১৬, ০৪:৪৮ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বেসরকারি আইসিটি শিক্ষকদের শিক্ষা ভবন ঘেরাও

নিজস্ব প্রতিবেদক: এমপিওভুক্তির দাবিতে শিক্ষা ভবন ঘেরাও করেছে বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিষয়ের শিক্ষকরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ‘বাংলাদেশ এমপিওবঞ্চিত আইসিটি শিক্ষক সংগঠনের’ ব্যানারে দেড় শতাধিক শিক্ষক এই ঘেরাও কর্মসূচিতে অংশ নেন।

আইসিটি শিক্ষকরা জানান, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুন এমপিওভুক্তির বিষয়ে আশ্বস্ত করে আইসিটি শিক্ষকদের আন্দোলন থামাতে বলেছেন।

২০১১ সালের নভেম্বরে এক পরিপত্রের মাধ্যমে সরকার আইসিটি শিক্ষকদের এমপিও স্থগিত করে। বছরের পর বছর ধরে এমপিওভুক্তি বন্ধ থাকায় বেতন-ভাতা ছাড়াই পাঠদান করে আসছেন এসব শিক্ষক।

আইসিটি শিক্ষকরা জানান, ২০১৫ সালের ১৫ ডিসেম্বর মাউশি এক হাজার ৩৫২ জন আইসিটি শিক্ষকের তালিকা প্রকাশ করা হয়। এর বাইরে মাদ্রাসার পাঁচশ এবং কলেজ পর্যায়ের একশ শিক্ষক এমপিও বঞ্চিত রয়েছেন।

মাধ্যমিক উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) সূত্র জানায়, দেশের এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে প্রায় ২৭ হাজার। এর মধ্যে ১৪ হাজার স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসায় ‘আইসিটি’ বিষয়ের শিক্ষক নেই। বাকি ১৩ হাজার প্রতিষ্ঠানে আইসিটি বিষয়ের শিক্ষক থাকলেও ১২শ’ ২৪জন শিক্ষক সরকারের বেতন-ভাতা সুবিধা থেকে বঞ্চিত রয়েছেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এস এম শামীমুর রহমান দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত লাগাতার অবস্থান চলবে বলে জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে ‘আইসিটি’ সেক্টরকে সরকার গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিলেও ধুঁকে ধুঁকে চলছে আইসিটি শিক্ষা। কম্পিউটার শিক্ষকদের বেতন ভাতা না দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ করা সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, প্রতিটি বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধমে আমরা পাঠদান করছি। দুঃখের বিষয় আমরা প্যার্টানভুক্ত শিক্ষক হলেও কোনো ধরনের পারিশ্রমিক ও বেতন-ভাতা পাচ্ছি না। তাই অবিলম্বে আইসিটি শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত করার দাবি জানাই।

আইসিটি শিক্ষকদের দাবি, চাকরির যোগদানের তারিখ থেকে তাদের এমপিও দিতে হবে। এ ছাড়া দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের হস্তক্ষেপও কামনা করেন তারা।

এমকে

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন