শিরোনাম :

ঝিনাইদহে যৌন হয়রানীর দায়ে স্কুল শিক্ষক গ্রেফতার


রবিবার, ২৭ আগস্ট ২০১৭, ০২:৪১ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পশ্চিম দুর্গাপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে স্কুলশিক্ষকের যৌন হয়রানীর প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছে এলাকার অভিভাবক ও ছাত্রীরা।

এ ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা স্কুলে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করে।খবর পেয়ে স্কুলের সভাপতি ও মধুহাটী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফারুক আহম্মেদ জুয়েল স্কুলে উপস্থিত হয়ে বিচারের আশ্বাস দেন।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় জরুরিভাবে পরিচালনা কমিটির সভা চলছে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানী করে স্কুলের ক্রীড়া শিক্ষক রবিউল ইসলাম বাবলু। তিনি মহামায়া গ্রামের সোবাহান বিশ্বাসের ছেলে।

এদিকে শনিবার রাত সোয়া ১০টার দিকে অভিযুক্ত শিক্ষক রবিউল ইসলাম বাবলুকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এ খবর এলাকায় জানাজানি হলে অভিভাবকরা অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

সেই সাথে বিচার ও লম্পট শিক্ষককে স্কুল থেকে বরখাস্ত ও উপযুক্ত শাস্তির দাবি অভিভাবকদের।এর আগেও ওই স্কুলের শিক্ষক জহুরুল ইসলামের নামে আরেক ছাত্রীর গায়ে হাত দেয়া ও উত্যাক্ত করার অভিযোগ ওঠে। পরে তাকে তিন মাস সাময়িক বরখাস্ত রেখে চিল্লায় পাঠিয়ে দেয়া হয় বলে কথিত আছে।

একটি সূত্র জানায়, ওই স্কুলের একাধিক ছাত্রীকে হয়রানী করা হয়েছে।এদিকে পশ্চিম দুর্গাপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা বার বার নিগ্রহের শিকার হওয়ার বিষয়টি শনিবার বাজারগোপালপুরসহ এলাকায় ‘টক অব দ্য ভিলেজে’ পরিণত হয়।

লম্পট শিক্ষকদের বরখাস্তসহ তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে চায়ের দোকানগুলোতে সমালোচনার ঝড় ওঠে।বিষয়টি নিয়ে পশ্চিম দুর্গাপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুর রহমান ছাত্রীদের বিক্ষোভ ও ক্লাস রুমে তালা মারার কথা স্বীকার করে জানান, উদ্ভুত পরিস্থিতি মোকাবিলায় রোববার বিশেষ জরুরি সভা আহবান করা হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে শিক্ষক রবিউল ইসলাম বাবলের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।তবে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমাদুল হক শেখ জানান, শিক্ষক রবিউল ইসলাম বাবলুকে থানায় আনা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

 

 

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন