শিরোনাম :

এসএসসি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি


রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৭:৪৬ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

এসএসসি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ পেয়েছে  তদন্ত কমিটি

ডেস্ক প্রতিবেদন:এসএসসি পরীক্ষার একটি বিষয়ের পুরোপুরিসহ কয়েকটি বিষয়ের আংশিক প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ পেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি। প্রশ্ন ফাঁস হওয়া পরীক্ষাটি বাতিলের সুপারিশ করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ সংক্রান্ত তথ্য যাচাই-বাছাই কমিটির দ্বিতীয় সভা শেষে কমিটির প্রধান কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর এ কথা জানান।

রোববার  বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে কমিটির দ্বিতীয় সভা শেষে মো. আলমগীর বলেন, প্রশ্নপত্র কখন আউট হয়েছে, পত্র-পত্রিকায় এসেছে- সেটা আমাদের মেলাতে হবে।

প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে কিনা- প্রশ্নে সচিব বলেন, আমরা মিলিয়ে দেখবো। ২৫ তারিখে বসে বাকি যে কয়টা আছে সেগুলো দেখে ফাঁস হওয়ার যে অভিযোগ আছে সে প্রশ্নগুলো নেবো এবং আমাদের পরীক্ষায় যে প্রশ্ন হয়েছে সেটা দেখবো। দেখে তখন ঠিক করবো।

‘যেমন অংক দেখলাম, ফেসবুকে তারা বলেছে চার সেটই ফাঁস করলাম। আমরা মিলিয়ে দেখলাম একটিও মেলেনি। কিন্তু আবার ইংরেজির দেখলাম কিছু মিল পেয়েছি। এজন্য আমরা আরো দেখবো, দেখে সিদ্ধান্ত নেবো।’

এ পর্যন্ত ফাঁসের প্রমাণ পাওয়া গেছে কিনা- জানতে চাইলে সচিব বলেন, না পাবো কেন? আছে তো, আংশিক তো আছেই। কিছু কিছু আংশিক আছে, কিছু কিছু পুরোপুরি আছে।

সেটা কি সাজেশন না প্রশ্ন- সচিব বলেন, না, কিছু কিছু তো সরাসরি, হুবহু মিলে গেছে। সেটা কেন আমরা সাজেশন মনে করবো?

এটা কোন বিষয়- সচিব বলেন, এটা তো এখন বলবো না। যখন সুপারিশ করবো তখন বলবো।

ওই পরীক্ষা কি বাতিলের সুপারিশ করবেন- প্রশ্নে সচিব মো. আলমগীর বলেন, হ্যাঁ। যদি দেখা যায় যে কোনো প্রশ্ন হুবহু মিলে গেছে এবং সেটা যদি দেখা যায় যে পরীক্ষার দিন। যেমন মনে করেন, অবজেকটিভ টাইপের প্রশ্ন যদি ফাঁস হয়ে থাকে তাহলে বাকি পরীক্ষা নতুন করে নেবো না। শুধু অবজেকটিভের জন্য পরীক্ষা হবে, যদি পরীক্ষা চলার এক’দুঘণ্টা আগে বা তিন ঘণ্টা আগে বা আগের দিন ফাঁস হয়ে থাকে। আর যদি দেখা যায় পরীক্ষা চলাকালীন ফাঁস হয়েছে, তাহলে তো পরীক্ষা চলাকালীন বা আধা ঘণ্টা আগে তখন তো পরীক্ষার্থীরা ঢুকে গেছে। তখন হয়তো ৫শ ছেলেমেয়ে এটার সঙ্গে জড়িত। তখন তো ২০ লাখ ছেলেমেয়ের পরীক্ষা বাতিল করা ঠিক হবে না।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন