শিরোনাম :

বহু গুণে গুণান্বিত সফল এক জাত অভিনেত্রী


মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বহু গুণে গুণান্বিত সফল এক জাত অভিনেত্রী

বিনোদন, ১৬ এপ্রিল ২০১৯(বাংলাপ্রেস): ‘বিপাশা হায়াত’। বাংলা টেলিভিশন জগতের একসময়ের অন্যতম সেরা জনপ্রিয় অভিনেত্রী তিনি। তার পরিচিতি সংক্ষেপে বললে শেষ করা যাবে না। তিনি হুমায়ূন আহমেদের ‘আগুনের পরশমনি’র সিনেমার ঢাকা শহরে আটকে পড়া এক তরুণী, যে কিনা শুধু দেশকে মুক্ত করার স্বপ্ন দেখে, মুক্ত বিহঙ্গের মত উড়তে ভালোবাসে, সে সঙ্গে মন থেকে ভালোবাসে মুক্তিযোদ্ধা আলমকে, অথবা আরেক সিনেমায়, যে কিনা পাকিস্তানিদের ভয়ে পলায়নরত সন্তানহারা মায়ের চরিত্র ‘হাওয়া’। তাদের ভয়ে দিগ্বিদিক পালিয়ে বেড়ানো কোন নারী। মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা ‘জয়যাত্রা’য় এমনই গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে যে নিজেকে ফুটিয়ে তুলেছেন, যার অভিনয় আজো বাংলার দর্শকরা আশায় থাকেন। তিনি হলেন বিপাশা হায়াত। ‘জয়যাত্রা’য় এমনই অভিনয় দেখিয়েছিলেন তিনি, যার জন্য পেয়েছিলেন জাতীয় পুরস্কারও।

আরেক জাঁদরেল ও বিশিষ্ট অভিনেতা আবুল হায়াতের বড় কন্যা বিপাশা হায়াত। মুক্তিযুদ্ধের উত্তাল মার্চে এই প্রখ্যাত শিল্পীর ঘরেই তার জন্ম, প্রখ্যাত অভিনেতার ঘরে জন্মিয়ে কালক্রমে তিনিও হয়ে উঠেছেন জাত শিল্পী। বিপাশা হায়াত প্রথম আশির দশকে ‘খোলা দুয়ার’ নাটকে বাবার মেয়ে হয়েই অভিনয়ে পদার্পণ করেন। এরপর তিনি যুক্ত হন নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়ে আর টিভি নাটকে প্রথম আলোচনায় আসেন ‘অয়োময়’ ধারাবাহিক দিয়ে। সে থেকে তাকে বাংলাদেশের টেলিভিশন ও মঞ্চের প্রধান অভিনেত্রী হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

এরপর পুরো নব্বই দশকে এই বিপাশাই ছিলেন শীর্ষ অভিনেত্রীদের একজন। একে একে অভিনয় করেন শঙ্কিত পদযাত্রা, রূপনগর, ছোট ছোট ঢেউ, অন্য ভুবনের ছেলেটা, চেনা অচেনা মুখ, থাকে শুধু ভালোবাসা, বীজমন্ত্র, স্পর্শ, শেষ পর্যন্ত তোমাকে চাই, বিপ্রতীপ, অতিথি, হারজিৎ, আশিক সব পারে, বিষকাঁটার মত জনপ্রিয় নাটকগুলোতে। ওই সময় (নব্বই এর দশকে) জনপ্রিয় অনেক টিভি নাটকে অভিনয়ই তাকে মূলত বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান অভিনেত্রী হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছে । এমনকি তিনি তখন মঞ্চনাটকেও সমানভাবে সফল ছিলেন, কিন্তু বিয়ের পর মঞ্চনাটক ছেড়ে দেন এই অভিনেত্রী।

অনেকের অজানা হলেও সত্যি যে, ওই সময় বিপাশা এতটা জনপ্রিয়তা পান যে, সেই দশকে অনেক অভিনেত্রীই লাক্সের বিজ্ঞাপন করেছিলেন তবে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক তিনিই নিয়েছিলেন। অভিনয়ের পাশাপাশি মডেলিং জগতেও খেতাব ছিল তার। একটা সময় পর অভিনয় জগত থেকে বিরতি নিয়েছিলেন এই জাঁদরেল অভিনেত্রী, তবে যখনই এসেছিলেন তখনই নিজেকে সমাদৃত করেছিলেন। বিপাশার অন্যতম কাজ হলো, দিল দরিয়া, ইনসমনিয়া, শেষ বলে কিছু নেই, দুই বোন, হাতটা বাড়িয়ে দাও, চিনিখোর প্রভৃতি।

এদিকে, বছর খানেক আগে বিপাশা নিজের পুরনো একটি অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলেন। যেটা শুনলে হয়ত আপনিও চমকে উঠবেন, তা হলো, নব্বই দশকের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ এ অভিনয়ের জন্য প্রথম মৌসুমীর পরিবর্তে তিনি অফার পেয়েছিলেন। তবে বাণিজ্যিক ছবি করবেন না বলে সে সময় পরিচালককে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। এরপর দু’টি মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা আগুণের পরশমনি ও জয়যাত্রায় অভিনয় করেন বিপাশা।

তার আলাদা আরো অনেক পরিচিতি রয়েছে। অভিনয়ের বাইরে তিনি একজন নাট্যকার, নাটক লিখেছেন, বানিয়েছেন। এর মধ্যে শুধু তোমারেই জানি, শুকতারা, শঙখবাস, ঘাসফুল, প্রেরণা অন্যতম। এছাড়া বিপাশার উপস্থাপক হিসেবেও সুপরিচিতি আছে। ‘বিপাশার অতিথি’ নামক একটা অনুষ্ঠান বেশ জনপ্রিয় ছিল একসময়। আবৃত্তি ও গানেও সুপরিচিত ছিলেন তিনি। এক কথায় বলা যায়, বহু গুণে গুণান্বিত ছিলেন বিপাশা হায়াত।

আরেকটি চরম প্রতিভা বিপাশার মধ্যে লুকায়িত আছে, তা হল, তিনি একজন চিত্রশিল্পী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চারুকলায় স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন বিপাশা। বছর কয়েক আগে এসিড আক্রান্ত নারীদের সাহাযার্তে নিজের আঁকা ছবি প্রদর্শনীতে উঠিয়েছিলেন। এবং সে টাকা তাদের সাহায্যার্থে দানও করেছিলেন তিনি।

বিপাশার অর্জন: বর্ণিল ক্যারিয়ারে বিপাশা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ছাড়াও পেয়েছেন মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার, বাচসাস পুরস্কারসহ অসংখ্য নামীদামী পুরস্কার। সাংস্কৃতিক জীবনের মত তার ব্যক্তিগত জীবনটাও মসৃন ও পরিস্কার। বোন নাতাশা হায়াত ও তার স্বামী শাহেদ শরীফ খান তারাও বেশ পরিচিত মিডিয়ায়। ফুফাতো বোন ফিমা আহমেদও নাটক-বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। ব্যক্তিজীবনে তিনি নিজের ক্যারিয়ারের সেরা জুটি অভিনেতা ও নির্মাতা তৌকীর আহমেদকে বিয়ে করেছেন। তাদের সংসারে রয়েছে দু’টি সন্তান, এক ছেলে ও এক মেয়ে। মিডিয়া জগতে সুখী দম্পতি হিসেবে যদি কারো নাম উঠে আসে তাহলে শুরুতেই আসবে তৌকির ও বিপাশার নাম। মিডিয়ায় যেমন তাদের সুপরিচিতি রয়েছে, ঠিক তেমনি শান্তি রয়েছে সংসারে। কখনোই তাদের সাংসারিক ঝামেলার খবর গণমাধ্যমে আসেনি।

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন