শিরোনাম :

বরিশালে সাড়ে তিন লাখ শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে


বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৫:১৮ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বরিশালে সাড়ে তিন লাখ শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে

ডেস্ক প্রতিবেদন: বরিশাল প্রতিনিধি: আগামী শনিবার ২৩ ডিসেম্বর বরিশাল সিটি কপোরেশনসহ জেলায় ৩ লাখ ৫৩ হাজার ১শ ৩৬ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে বরিশাল জেলার ১০ উপজেলায় খাওয়ানো হবে ৩ লাখ ৪ হাজার ৩শ’ ৫১ জন ও সিটি এলাকায় ৪৮ হাজার ৭শ ৮৫জন শিশুকে।

এ উপলক্ষে আজ বুধবার বরিশাল জেলা সিভিল সার্জন’র উদ্যোগে এক সংবাদ সন্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বেলা সাড়ে ১১ টায় নগরীর সিভিল সার্জন কার্যলয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সন্মেলনের সভাপতিত্ব করেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. মনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, আগামী ২৩ ডিসেম্বর শনিবার জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন। ওই দিন বরিশাল জেলার ০৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সী সকল শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ০৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৩২ হাজার ৫শ’ ১৯ জন শিশুকে নীল রঙের ১ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পূন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে। পাশাপাশি ১২ থেকে ৫৯ বয়সের ২ লাখ ৭১ হাজার ৮শ’ ৩২ জন শিশুকে লাল রঙের ২ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পূন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে।

তিনি বলেন, ওই দিন বরিশালের ১০ উপজেলার ৮৫টি ইউনিয়নের ২৫৫টি ওয়ার্ডে ২ হাজার ৪০ টি টিকা দান কেন্দ্রের মাধ্যমে এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। বরিশাল সিভিল সার্জনের এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে সেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করবেন মোট ৪ হাজার ৩১০ জন কর্মী। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত টিকাদান কেন্দ্র খোলা থাকবে।

এছাড়া শুধুমাত্র জেলার মেহেন্দ্রিগঞ্জ, মুলাদী ও হিজলা উপজেলায় ৪দিন ব্যাপী বাদপড়া শিশুদের ভিটামিন ক্যাপসুল থাওয়ানো হবে।

সিভিল সার্জন বলেন, ইতো মধ্যে এ কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রচার প্রচারণা চালানো হচ্ছে। এর পাশাপাশি শুক্রবার জুম্মাবাদ সকল মসজিদে ইমামরা জেলাবাসীকে অবহিত করবেন। অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব থেকে শিশুকে রক্ষা করতে এই ভিটামিনের বিকল্প নেই বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সংবাদ সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ডিপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ শ্যামল কৃষ্ণ মন্ডল ও জেলা ইপিআই সুপারিনটেনডেন্ট মো. বজলুল রহমান প্রমুখ।

এদিকে বরিশাল সিটি কপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মতিউর রহমান জানিয়েছেন, শনিবার ২৩ ডিসেম্বর বরিশাল সিটি কপোরেশনের আওতায় ২২০ টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৪৮ হাজার ৭শ ৮৫জন শিশুকে এই ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এর মধ্যে এর মধ্যে ০৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৪ হাজার ৮শ’৭০ জন শিশুকে নীল রঙের ১ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পূন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে। একই সাথে ১২ থেকে ৫৯ বয়সের ৪৩ হাজার ৯শ’ ১৫ শিশুকে লাল রঙের ২ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পূন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে। ওই দিন সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ, সদর হাসপাতাল, শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি ২২ টি প্রতিষ্ঠানের ৪৭৪ জন কর্মী শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কাজ করবেন। এ উপলক্ষ্যে আগমীকাল বৃহস্পতিবার নগর ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন