শিরোনাম :

বিজেপি বিরোধী জোটে থাকছেন না কেজরিওয়াল


শুক্রবার, ১০ আগস্ট ২০১৮, ১২:৩৫ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বিজেপি বিরোধী জোটে থাকছেন না কেজরিওয়াল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান নির্বাচনে জেডিইউ প্রার্থীকে জিতিয়ে এনে প্রথম ধাক্কাটা দিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর এবার ‘বন্ধু বিচ্ছেদে’ দ্বিতীয় ধাক্কাটাও খেল মোদী-বিরোধী শিবির। সৌজন্যে আম আদমি পার্টি এবং অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এতদিন যিনি কি না বিজেপি বিরোধী মিছিলে সামনের সারিতে ছিলেন, তিনি-ই এবার সোজা ইউ টার্ন নিলেন। নেতৃত্ব দেওয়া তো দূর, ফেডারল ফ্রন্টে সামিলই হবেন না কেজরি!

এনআরসি, দেশের নারী নিরাপত্তা, পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি-সহ আরও একাধিক ইস্যু-কে সামনে রেখে বিরোধীরা যখন শাসক দলের বিরুদ্ধে কোমর বেঁধে নেমেছে, ঠিক তখনই বিরোধীদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন থেকে পিছু হঠলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। আপ প্রধান জানিয়ে দিলেন অ-বিজেপি জোট তৈরি করে ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন লড়ার যে প্রস্তাব রাখা হয়েছে, তাতে তাঁরা নেই। উল্টে তাঁর বক্তব্য, “দেশের উন্নয়নে কোনও ভূমিকাই নেয়নি বিরোধীরা”।

অর্থাত্, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কুমারস্বামী, লালু-মুলায়ম-মায়াবতী, স্ট্যালিন, চন্দ্রবাবু নাইডু, পিনারাই বিজয়ন-সহ কংগ্রেস-কে নিয়ে যে বিরোধী ঐক্যের ছবি দেশ সবে মাত্র দেখতেই শুরু করেছিল, সেই বিরোধী ঐক্যে ফাটল ধরল। অরবিন্দ কেজরিওয়াল সাফ জানিয়ে দিলেন, আসন্ন হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচন-সহ আগামী লোকসভা নির্বাচনে ‘একলা চলো রে’ নীতিতে হাঁটবেন তাঁরা।

হরিয়ানায় প্রতিটি আসনেই প্রার্থী দেবে আপ। এমনকী লোকসভা নির্বাচনেও প্রতিটি কেন্দ্র থেকে ঝাড়ু চিহ্নে প্রার্থী দাঁড় করানোর কথা ভাবছে তাঁরা।

বৃহস্পতিবার, সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী জানান, “২০১৯ নির্বাচনে কোনও জোটেই থাকবে না আপ”। একই সঙ্গে দিল্লি সরকারের ঢাক পিটিয়ে তিনি দাবি করেন, শিক্ষা এবং স্বাস্থ্যক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে তাঁর সরকার। তাঁর আরও দাবি, দিল্লি উন্নয়নের নিরিখে ঢের পিছিয়ে মনোহরলাল খট্টর শাসিত হরিয়ানা। একই সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের কাছে হরিয়ানার প্রতিটি শহিদ জওয়ানের পরিবারকে এক কোটি টাকা করে প্রতিদান দেওয়ার দাবিও তুলেছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। বিশেষত আম্বালার জওয়ান পরিবারগুলোর কথাই বেশি করে সামনে নিয়ে এসেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, এদিন নরেন্দ্র মোদী-কেও বিঁধতে ছাড়েননি অরবিন্দ কেজরিওয়াল। দেশের প্রধানমন্ত্রী-কে দুষে তিনি বলেন, “কেন্দ্রের মোদী সরকার দিল্লির উন্নয়ন আটকে রেখেছে। এখনও অনেক কাজ বাকি। আপ সরকার দিল্লির উন্নয়নের জন্য লড়াই চালিয়ে যাবে এবং দিল্লিবাসীর কল্যাণকর পদক্ষেপ গ্রহন করবে”।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন