শিরোনাম :

হংকংয়ের স্বাধীনতাপন্থীরা কাবু


বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ০৪:২০ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

হংকংয়ের স্বাধীনতাপন্থীরা কাবু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তিন অস্ত্রে হংকংয়ের স্বাধীনতাপন্থীদের বিক্ষোভ ঘায়েল করছে চীন। অর্থনৈতিক শক্তি, মিডিয়ায় অপপ্রচার চালানো এবং সমরশক্তির ভয়- এ তিন মন্ত্রে হংকংকে কাবু করছে বেইজিং।

এএফপি জানায়, জুন থেকে শুরু হওয়া হংকংয়ের আন্দোলনকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে এবং সেখানে বিভেদের বীজ বপন করতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে অপপ্রচার চালাচ্ছে চীন।

হংকংয়ের রেল স্টেশনে সহিংসতার ঘটনাকে বেইজিং অন্যভাবে প্রচার করছে। বলা হচ্ছে, গুপ্তচর সন্দেহে দুই চীনা নাগরিককে পিটিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। পরে চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম হংকংয়ের বিক্ষোভকারীদের ‘সন্ত্রাসী’ তকমা দেয়।

চীনের রাষ্ট্র সমর্থিত অপপ্রচারে যুক্ত সন্দেহে টুইটার চলতি সপ্তাহে ৯৩৬টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে।

চীনের রাষ্ট্রদূত দেশটির গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্ককে হংকংয়ের বিক্ষোভকারীদের নিন্দা রটানোর জন্য নির্দেশ দিয়ে রেখেছে। রাষ্ট্রীয় পত্রিকায়ও স্বাধীনতাকামী বিক্ষোভকারীদের দমনে নানা কৌশল অবলম্বনের জন্য চীনকে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

বিক্ষোভ দমনে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ চীন অর্থনৈতিক শক্তিরও ব্যবহার করছে। হংকংয়ের এয়ারলাইন্স ক্যাথে প্যাসিফিকের ২৭ হাজার কর্মী বিক্ষোভকারীদের র‌্যালিতে যোগ দিয়েছিলেন। এজন্য তাদের কম নিন্দা পোহাতে হয়নি।

চীনের মূল ভূখণ্ডে অথবা চীনের আকাশসীমায় এসব কর্মী ভ্রমণ করতে পারবে না বলে দাবি তোলে দেশটির বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। ‘বয়কট ক্যাথে প্যাসিফিক’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে এয়ারলাইনটির বিরুদ্ধে চাপ সৃষ্টি করে চীনা সমর্থিত সামাজিক যোগাযো গণমাধ্যমগুলোও। চাপের মুখে অবশেষে গত শুক্রবার পদত্যাগে বাধ্য হন ক্যাথে প্যাসিফিকের নির্বাহী প্রধান।

বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে স্থানীয়দের বিরূপ বক্তব্য প্রচারের জন্য চীনপন্থী ধনকুবেরদের তালিকা তৈরি করেছে বেইজিং। হংকংয়ের নেতা ক্যারি ল্যামের প্রতি সমর্থন জানিয়ে চিঠি লিখেছেন শতাধিক ব্যবসায়ী ও আইনপ্রণেতা।

চিঠিটি বেইজিংপন্থী পত্রিকার প্রথম পাতায় বড় করে ছাপা হয়েছে। চাইনিজ ইউনিভার্সিটি অব হংকংয়ের জ্যেষ্ঠ প্রভাষক ইভান চয় বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের সহজেই বুঝানো সম্ভব, কারণ চীনা ভূখণ্ডে তাদের বৃহৎ স্বার্থ রয়েছে।’

এছাড়া সমরশক্তি দেখিয়ে বিক্ষোভকারীদের মনে ভীতির সৃষ্টি করতে চাইছে চীন। জুলাইয়ের শেষ দিকে দাঙ্গাবিরোধী মহড়া চালানোর একটি ভিডিও প্রকাশ করে বিক্ষোভকারীদের ভয় দেখানোর চেষ্টা করেছে চীনের সেনাবাহিনী।

গত সপ্তাহে হংকংয়ের সীমান্ত লাগোয়া শেনঝেন শহরের একটি স্টেডিয়ামে লাল পতাকা উড়িয়ে সামরিক মহড়া চালায় হাজার হাজার সেনা। ভারি অস্ত্রে সজ্জিত সেনা দলের এ মহড়ার ভিডিও রাষ্ট্রীয় টিভিতে ফলাও করে প্রচার করেছে চীন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন