শিরোনাম :
   বাংলাদেশের বডিবিল্ডার সাকিব চতুর্থ    সিআইডির তদন্তে মামলার বাদী-ই হত্যাকারী!    বরিশালে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী ইয়াবাসহ গ্রেফতার    যৌতুকের দাবিতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ    কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয় দিনেও উপাচার্যের কার্যালয়ে শিক্ষক সমিতির তালা    কুবিতে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয়    ৩৬তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ    সালমান শাহ’র মায়ের বিরুদ্ধে সামিরার মায়ের ১০ কোটি টাকার মামলা    খালেদা জিয়া দেশে ফিরলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী    রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়াতে বিশ্ব সম্মেলনের ডাক দিয়েছে জাতিসংঘ

গায়ে হলুদের ভিন্ন সাজ


বৃহস্পতিবার, ১৩ জুলাই ২০১৭, ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

গায়ে হলুদের ভিন্ন সাজ

ডেস্ক প্রতিবেদন: বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার প্রথম ধাপ হলো গায়ে হলুদ। আর এ অনুষ্ঠানই সবচেয়ে বেশি জাঁকজমকপূর্ণ হয়ে থাকে। তাই কনের সাজ, পোশাক সবকিছুতেই চাই পরিপূর্ণতা। যেহেতু এ অনুষ্ঠানে ফুলই প্রধান আকর্ষণ হয়ে আসছে দীর্ঘ দিন থেকে তাই আপনি চাইলে একটু ভিন্ন ভাবে ফুল এবং ফুল ছাড়া গহনা দিয়ে সাজতে পারেন। জেনে নিন গায়ে হলুদের ভিন্ন সাজের কিছু টিপস।

‘গায়ে হলুদ’ নামটির সঙ্গে মিল রেখে আবহমানকাল থেকে কনেরা হলুদ রঙের শাড়ি ব্যবহার করে আসছে গায়ে হলুদে। এক সময় গায়ে হলুদের জন্য নির্ধারিত ছিল কেবল হলুদ শাড়িই। বর্তমান সময়ে এ রকম ধারণার একটু পরিবর্তন হচ্ছে। এখন কেবল হলুদ নয়, বরং একরঙা লাল, কাঁচা মেহেদির রং, সবুজও চলতে পারে। আর শাড়ি সব সময় হলুদ হতে হবে এমন কোনো নিয়ম নেই। আপনি চাইলে ভিন্ন রঙে নিজেকে রাঙিয়ে নিতে পারেন। ফেব্রিক হতে পারে মসলিন, সিল্ক, কটন, জামদানি। শাড়িতে খুব জমকালো কাজ না থাকলেই ভালো। এ অনুষ্ঠানে বরপক্ষের ও কনেপক্ষের আত্মীয়রাও একই ধরনের বা রঙের কাপড় পরলেই ভালো। সাথে উভয় পক্ষকে সহজেই আলাদা করা যায় এবং দেখতেও ভালো লাগে। অতীতে এ প্রচলনটাই ছিল। এ আয়োজনের মাধ্যমেই বিয়ের অনুষ্ঠানের শুরু, তাই যতটা সম্ভব সুন্দর ও রুচিসম্মতভাবে সাজা যায় ততই ভালো। এ অনুষ্ঠানে শাড়ি সাধারণত একপ্যাঁচেই পরতে দেখা যায়। অনেক ক্ষেত্রেই শাড়ি পরার পরে মাথায় দেওয়ার জন্য অসুবিধা হয়ে যায়, সেক্ষেত্রে মাথার আলাদা ওড়না রাখা যেতে পারে হলুদের অনুষ্ঠানে। তবে মাথায় কাপড় রাখতেই হবে নইলে অসম্পূর্ণ লাগে।

গায়ে হলুদের ভিন্ন সাজ

হলুদের শাড়ির সাথে মিলিয়ে গহনা তৈরির চিন্তাটাও মাথায় রাখতে হবে। হলুদের সাজের পূর্ণতা আনতে গহনা অবশ্যই জরুরি। সময়টা যেহেতু শীতকাল। তাই এখন ফুলের মৌসুম। কাঁচা ফুলের গহনাই বেশি মানানসই। এ ছাড়া শুকনো ফুলের সঙ্গেও পুঁতি-জরির কাজ, স্টোন দিয়ে তৈরি কৃত্রিম ফুলের মালা কিনতে পাওয়া যায়। যা আপনার শাড়ির রঙের সঙ্গে ম্যাচ করে অর্ডার দিয়ে বানিয়েও নিতে পারেন। যেমন গহনাই পরা হোক না কেন, ফুলের আকার ছোট হলেই ভালো। সাজের একটু ভিন্নতা আনতে চাইলে রূপা বা পুঁথির গহনাও পরতে পারেন। হাতে থাকতে পারে ফুলের গহনা। বাজুতে ফুল এবং হাতভর্তি কাঁচের চুড়ি।

গায়ে হলুদে হালকা মেকআপ করলেই ভালো। কারণ বিয়ের জন্য গর্জিয়াস মেকআপ করতে হবে। তাছাড়া হলুদের অনুষ্ঠানে একটা ঘরোয়া ভাব সব সময় বজায় থাকে। গায়ে হলুদের অধিকাংশ ক্ষেত্রেই হলুদ রঙের শাড়ি পরানো হয় তাই মেকাপে গোল্ডেন, ব্রাউন, ব্রোঞ্জ শেড ব্যবহার করলেই ভালো লাগে। মেকআপ হালকা হলেই ভালো দেখায়, চোখের সাজে নিজের চোখটাকে হাইলাইট করে তুলুন। গোল্ডেন, ব্রোঞ্জ, ব্রাউন আইশ্যাডো ব্যবহার করুন। সঙ্গে গাঢ় করে আইলাইনার। মাশকারা ও আইলাশের ব্যবহার চোখ দুটোকে করে দেয় অনেক বেশি প্রমিনেন্ট। গালে ব্রাউন ব্লাশঅন, শেড আর ঠোঁটে ন্যাচারাল লিপস্টিক। গ্লস না লাগানোই ভালো। এমন লিপস্টিক সিলেক্ট করুন যা বেশিক্ষণ পর্যন্ত থাকে এবং হলুদে অনেক মিষ্টি খাওয়ার পরও যেন অক্ষত থাকে। চেহারায় বাড়তি একটি সোনালি আভা আনার জন্য ব্যবহার করুন গোল্ডেন ব্রাউন শিমার। চুলে করতে পারেন খোঁপা, খোঁপায় পরতে পারেন ফুল। এ ছাড়া খোঁপার পরিবর্তে লম্বা বিনুনি করে ফুলের মালা জড়িয়ে দিতে পারেন বেণীতে। বা অন্য কোনোভাবে বেণীকে ডেকোরেট করুন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন