শিরোনাম :

গোলাপ জলের কয়েকটি ব্যবহার


সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১০:১২ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

গোলাপ জলের কয়েকটি ব্যবহার

ডেস্ক প্রতিবেদন: গোলাপের পাপড়ি জলে ভিজিয়ে তা থেকে তৈরি করা হয় গোলাপ জল। ত্বকের জন্য এটি খুবই উপকারি। এমনকি স্পর্শকাতর ত্বকেও নিশ্চিন্তে ব্যবহার করা যায় গোলাপ জল। ত্বকের নানারকম সমস্যার এটি অন্যতম সমাধান। জেনে নিন, কী কী ভাবে ব্যবহার করা যায় গোলাপ জল-

টোনার হিসাবে: ত্বক সুস্থ রাখতে নিয়মিত ক্লিনজ়িং, টোনিং, স্ক্রাবিং ও ময়েশ্চারাইজ়িং করা উচিত। আর ক্লিনজ়ার, টোনার, স্ক্রাবার ও ময়েশ্চারাইজ়ারগুলি যদি প্রাকৃতিক হয়, তবে ভালো ফল পাওয়া যায়। টোনার হিসাবে যেমন ব্যবহার করতে পারেন গোলাপ জল। কারণ, গোলাপ জল ত্বকে pH-এর সমতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। রাতে ঘুমোনোর আগে তুলো দিয়ে সারা মুখে গোলাপ জল লাগান। এতে ত্বক টানটান হবে। আর আপনিও সতেজ বোধ করবেন।

চোখের নিচের ফোলাভাব কমাতে: ক্লান্তি, অ্যালার্জি বা আরও বেশকিছু কারণে চোখের নিচের অংশ ফুলে উঠতে পারে। আসলে, চোখের চারপাশের অংশের চামড়া খুব পাতলা হয়। ওই অংশে অতিরিক্ত ফ্লুইড জমা হয়ে তা ফুলে ওঠে। ঠান্ডা জল স্প্রে করলে বা তা দিয়ে শেক দিলে কমানো যায় ফোলাভাব। একটি বোতলে গোলাপ জল ভরে তা ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে নিন। এবার চোখের চারপাশের ফোলা অংশে তা ব্যবহার করুন। ফোলা কমে যাবে আর আপনার চোখের চারপাশটি হয়ে উঠবে ঠান্ডা ও সুরভিত।

মেকআপ রিমুভার: গোলাপ জল ব্যবহার করা যায় মেকআপ রিমুভার হিসাবেও। কারণ, বাজার চলতি মেকআপ রিমুভারে নানারকম রাসায়নিক পদার্থ থাকে। যা ক্ষতি করে ত্বকের। গোলাপ জলের সঙ্গে নারকেল তেল ও আমন্ড অয়েল মিশিয়ে মেকআপ পরিষ্কার করলে ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে না। আর ত্বকও হয়ে ওঠে কোমল, জেল্লাদার ও দাগছোপমুক্ত।

ত্বকের ক্লান্তি দূর করতে: ত্বকের ক্লান্তি দূর করতেও কাজ দেয় গোলাপ জল। গোলাপ জলের মিষ্টি গন্ধ মন ভালো করতেও সাহায্য করে। মানসিক চাপ অনেকটা হালকা হয়ে যায় গোলাপ জলের গন্ধে। মেকআপ করার পর সামান্য গোলাপ জল স্প্রে করে নিলে চেহারায় আসে সতেজতা।

ত্বকে আর্দ্রতা জোগাতে: গোলাপ জল রুক্ষভাব দূর করে ত্বককে কোমল করে। ত্বকের গভীরে পৌঁছে ত্বককে ভিতর থেকে আর্দ্রতা জোগায় গোলাপ জল। প্রতিদিন ব্যবহারের ময়েশ্চারাইজ়িং ক্রিম, বডি লোশন বা ফেস মাস্কে সামান্য গোলাপ জল মিশিয়ে নিলে আরও ভালো ফল পাওয়া যায়।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন