শিরোনাম :

অসময়ে প্রেগন্যন্সি রুখতে প্রাকৃতিক নিয়ম


মঙ্গলবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৮, ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

অসময়ে প্রেগন্যন্সি রুখতে প্রাকৃতিক নিয়ম

ডেস্ক: অসময়ে প্রেগন্যন্সি রুখতে বহু মেয়েই গর্ভনিরোধক পিল ব্যবহার করেন। কিন্তু তার দীর্ঘ ব্যবহারে নানা সমস্যা দেখা দেয়। তার থেকে প্রাকৃতিক বার্থ কন্ট্রোল ব্যবহারে ক্ষতির কোনও সম্ভাবনা নেই। তবে এ ক্ষেত্রে সব সময় পদ্ধতি ১০০ শতাংশ কাজ না করলেও অন্তত ৭৫ শতাংশ ক্ষেত্রেই কাজ হয়।

ফার্টিলিটি টেস্ট

এই পদ্ধতিতে ঠিক কোন দিনে আপনি গর্ভধারণের জন্য একেবারে তৈরি তা জানা যায়। পিরিয়ড চক্রের শুরুতে ষষ্ঠ দিন নাগাদ মূত্রের নমুনা সংগ্রহ করে এই পরীক্ষা সম্ভব। সকালের প্রথম মূত্র নিয়ে পরীক্ষাটি করতে হয়। জানা থাকলে এ সময় আপনি যৌন সম্পর্ক থেকে দূরে থাকতে পারেন বা জন্ম নিরোধক ব্যবহার করতে পারে‌ন।


পেঁপে

গর্ভধারণ রুখতে বা গর্ভপাতের জন্য পেঁপে বহুল প্রচলিত। যে কোনও পুরুষের শরীরের স্বাস্থ্যবান স্পার্মকে এটি নষ্ট করে দিতে পারে।

ক্যালেন্ডার পদ্ধতি

পিরিয়ড চক্রের দিকে নজর রাখুন। সাধারণত ২৬ থেকে ৩২ দিনের চক্র হয়। ৮ থেকে ১৯ তম দিনে মহিলারা সবথেকে বেশি উর্বর থাকেন। সেই সব দিনগুলো চিহ্নিত করে সঙ্গীর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন থেকে দূরে থাকুন। তবে পিরিয়ড অনিয়মিত হলে এই পদ্ধতি ঠিক মতো কাজ করে না।

পুল আউট পদ্ধতি

পুরুষ সঙ্গী যদি স্পার্ম নিঃসরণের পূর্ব মুহূর্তে তার লিঙ্গটি নারীর যৌনাঙ্গ থেকে বার করে নেন তা হলে শুক্রানু ডিম্বানুর সংস্পর্শে আসতে পারে না। তবে এটা নির্ভর করে পুরুষ সঙ্গীর নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতার উপরে।

নিম

নিম পাতার রসে ভ্যাজাইনাতে থাকা স্পার্ম আধ ঘণ্টার মধ্যে নষ্ট হয়ে যায়। তা পরবর্তী পাঁচ ঘণ্টা কার্যকরও থাকে। যৌনাঙ্গে যে কোনও জ্বালা ভাবও এতে কমায় এটি। যৌন সম্পর্ক স্থাপনের আগে এটি ভ্যাজাইনার গায়ে মাখিয়ে নিন।

ডিসক্লেমার: এই লেখায় শুধুমাত্র জেনেরিক তথ্য রয়েছে। কোনও চিকিৎসকের সুচিন্তিত মতামত এটি নয়। বিশদে জা‌নতে আপনার চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। এই তথ্যের কোনও দায় বাংলাপ্রেসের নয়।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন