শিরোনাম :

আত্মপরিচয় ও ঈমানের সংকট (পর্ব এক )


মঙ্গলবার, ২৫ জুলাই ২০১৭, ০৬:০৩ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

আত্মপরিচয় ও ঈমানের সংকট (পর্ব এক )

আজিজ মনির: বাংলাদেশের জনপ্রিয় সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদ যখন কেন্সারে আক্রান্ত হয়ে নিউ ইয়র্কে মৃত্যুর প্রহর গুনছেন, এমন সময় একটি ভিডিও ক্লীপ সবার নজরে এলো। মৃত্যুর খুব কাছাকাছি এসে তাকে মৃত্যু নিয়ে বেশ উদ্বেলিত দেখা গেছে।

তিনি আকুতি করেছেন, স্রষ্টার কাছে যেন ইমান নিয়ে যাওয়া যায়। শয়তানের ধোকায় যেনো না পড়েন- এরকম উচ্চারণে উনার চোখে পানি টলমল করছে!

শিশুর মতো তিনি ও হয়ে উঠেন, বেশ অসহায়, নিরপরাধ।

তিনি বলে গেলেন, তার নিথর দেহের পাশে বসে পাশে বসে সূরা ইয়াসিন পাঠ করা হয়। 'কান্দনের বদলে মুখে কলমা পড়িবা'র অনুরোধ করে গেলেন। তার আকুতি, 'কবর জিয়ারত করিয়া দোয়া করিবায়'। রাব্বুল আলামিনের কাছে ঐ অশ্রুভেজা ফরিয়াদ যে গৃহীত হয়নি, কে বলতে পারে!

আচ্ছা, এই যে ছোট্ট জীবন, মৃত্যু, তারপর মৃত্যু পরবর্তী জীবনের হিসেবে নিকেশ করতে করতে কেমন একটা রহস্যময়তা কিংবা ভয় মিশ্রিত অনুভূতি আমাদের মধ্যে কাজ করে। যেমনটা প্রয়াত হুমায়ুন আহমেদ মৃত্যুর পূর্বে শিশুর মতো কেঁদেছেন, এইসব ভেবে। এই জীবন-মৃত্যুর রহস্যময়তার উৎস কী?

প্রশ্ন করি, এই নিশ্চিত মৃত্যুর বা জীবনের অনিবার্য পরিণতি সত্ত্বেও ব্যক্তি হিসেবে আমি মৃত্যুর জন্য কতটা প্রস্তুত ?

উত্তর- মোটেও প্রস্তুত না, আমরা কেও না! অথচ, আমরা মৃত্যু শোকে কান্না করি। প্রবল শোকে মাতম করি। প্রিয়জনের হারানো মুখ দেখে সৃষ্টিকর্তার কাছে আকুল ফরিয়াদ করি।

আমার এই শোক, এই কান্না, এই ফরিয়াদ- অনিবার্য মৃত্যু থেকে আমাদের কাউকে রেহাই দেয়না।

পুঁজিতান্ত্রিক ও বস্তুবাদী ধারণা ইসলামী সভ্যতার সাথে প্রতিনিয়ত বিরোধ তৈরী করে। ফলে আমরা অনিবার্য মৃত্যুর ভয়ে তাড়িত হলেও মৃত্যুর মুখোমুখি হতে সাহস পাইনা।

আমাদের এই বিশ্বাস ও আধ্যাত্মিকবোধ একটি পরিবেশকে ঘিরে আবর্তিত হয়, যার পরিপ্রেক্ষিত আছে, কিন্তু সামগ্রিকতা নেই।তাই আমাদের ইহকালীনতার আবেশে পরকালীনতা চাপা পড়ে থাকে।

অথচ, আমরা মৃত্যু পরবর্তী জীবনের হিসেবে নিকেশ মানি । বরং খুব মনে প্রাণেই বিশ্বাস করি। এই যে আমরা আমাদের আত্মপরিচয় ও ঈমানের সংকট নিয়ে প্রতিনিয়ত মৃত্যুর দিকেই ছুটে চলছি- এর সমাধান কী?

লেখক: সাংবাদিক আজিজ মনির, ব্রাসেলস, বেলজিয়াম/Contributor/Writer at Global Voices and Community and Knowledge Manager at WorldLoop, Studies Digital Communication, Policy and Innovation in Europe at VUB - Vrije Universiteit Brussel

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন