শিরোনাম :
   বরগুনায় শ্রেণিকক্ষে শিক্ষিকাকে গণধর্ষণ: গ্রেপ্তার ২    বাউবি’তে গবেষণা প্রস্তাবনা প্রণয়ন কৌশল তৈরি কর্মশালা    বরগুনায় বাণিজ্যিকভাবে পশু খামার চালু    সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র করছেন খালেদা জিয়া : ওবায়দুল কাদের    ফিরে দেখা ভয়াল ২১ আগস্ট: প্রিয় নেত্রীর জীবন বাঁচাতে শহীদ হয়েছেন সেন্টু    সাপাহারে খায়রুজ্জামান লিটনের ত্রাণ বিতরণ    ঝিনাইদহে স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত    বরিশালে স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন    বঙ্গবন্ধু নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি: কক্সবাজার সরকারি কলেজের ৫ শিক্ষার্থী বহিস্কার    কক্সবাজারে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় ২ যাত্রী নিহত

সাংবাদিক শিমুল হত্যা: আসামিদের মালামাল ক্রোকের নির্দেশ


সোমবার, ১০ জুলাই ২০১৭, ০৮:১২ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

সাংবাদিক শিমুল হত্যা: আসামিদের মালামাল ক্রোকের নির্দেশ

ডেস্ক প্রতিবেদন: সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের বহুল আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যা মামলার পলাতক ২৪ আসামির স্থাবর-অস্থাবর মালামাল ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে শাহজাদপুর আমলী আদালতের বিচারক হাসিবুল হক শাহজাদপুর থানা পুলিশকে এ নির্দেশ দেন।

গত ১৩ জুন মঙ্গলবার এ মামলার চার্জশিটের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বাদী শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম আদালতে উপস্থিত থেকে এ চার্জশিটের ওপর কোন আপত্তি না করায় আদালত তা গ্রহণ করে নথিভুক্ত করেন। সেই সাথে এ মামলার পলাতক ২৪ আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। এ মামলার জামিনে থাকা ৪ আসামি মিন্টু, আলমগীর, জহির ও দুলাল এ দিন আদালতে উপস্থিত হয়ে হাজিরা দেন।

অপর দিকে এ মামলার চার্জশিট আদালতে গৃহিত হওয়ার পর গত ১৯ জুন সাংবাদিক শিমুল হত্যা মামলার চার্জশিটভুক্ত প্রধান আসামি হালিমুল হক মিরুকে শাহজাদপুর পৌরসভার মেয়র পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় তাকে এ বরখাস্ত করেন।

গত ২ ফেব্রুয়ারি শাহজাদপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষের সময় মেয়র মিরুর শর্টগানের গুলিতে সাংবাদিক শিমুল আহত হন। পরে ঢাকা আনার পথে ৩ ফেব্রুয়ারি তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম বাদী হয়ে শাহজাদপুর পৌর মেয়র হালিমূল হক মিরু, তার ভাই মিন্টু, আওয়ামী লীগ নেতা নাছির উদ্দিনসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাত ১০-১২ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন