শিরোনাম :

মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিক দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডে


বুধবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০২:৪৭ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিক দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডে

ডেস্ক প্রতিবেদন: রাখাইনে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের নিয়ে রয়টার্সের জন্য খবর সংগ্রহ করাকে কেন্দ্র করে মিয়ানমারে গ্রেপ্তার হওয়া ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে ১৪ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার ইয়াঙ্গুনের উত্তরাঞ্চলীয় একটি জেলার আদালতে পুলিশি হেফাজতে দ্বিতীয় দফায় এ রিমান্ড মঞ্জুর করা হয় বলে জানিয়েছেন তাদের আইনজীবী।

গত ১২ ডিসেম্বর দাপ্তরিক গোপনীয়তা আইনে গ্রেপ্তার করা হয় এ দুই সাংবাদিককে। দেশটির গণমাধ্যম জানায়, অপরাধ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ ১৪ বছর কারাদণ্ড হতে পারে।

সাংবাদিক ওয়া লোন (৩১) এবং কিওয়া সো ও (২৭) মঙ্গলবার পর্যন্ত দুই সপ্তাহের আটকাবস্থা পূর্ণ করেছেন।
সংক্ষিপ্ত শুনানির জন্য আজ তাদের ইয়াঙ্গুনের আদালতে আনা হয়। শুনানির পর পরিবার-পরিজন, সহকর্মী ও আইনজীবীদের সঙ্গে তাদের দেখা করতে দেয়া হয়। গ্রেপ্তারের পর এই প্রথম সাক্ষাতের সুযোগ দেওয়া হলো তাদের।

রয়টার্সের হয়ে কাজ করা মিয়ানমারের এই দুই নাগরিক জানিয়েছেন, পুলিশি হেফাজতে তাদের সঙ্গে বাজে আচরণ করা হয়নি।
শুনানির পর ওয়া লোন বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক। আমরা এ পরিস্থিতির মোকাবিলা করব, কারণ আমরা কোনো ভুল করিনি।

রয়টার্স কর্তৃপক্ষের দাবি, সংবাদ সংগ্রহের ক্ষেত্রে তাদের প্রতিনিধিরা কোন ভুল করেনি।

রয়টার্সের নিযুক্ত আইনজীবী বলেছেন, সাংবাদিক হিসেবে তারা দুজন শুধু তাদের কাজটি করেছেন, কোনো ভুল করেননি।
রাখাইনে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের নিয়ে যে সংকট তৈরি হয়েছে, সে ইস্যুতে রয়টার্সের জন্য খবর সংগ্রহ করাকে কেন্দ্র করে মিয়ানমার সরকারের রোষানলে পড়েন এই দুই সাংবাদিক।

তাদের বিরুদ্ধে সরকারের গোপনীয়তা আইন ভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে সরকারের গোপন তথ্য হাতিয়ে তা প্রকাশ করেছেন তারা।

সাংবাদিকদের গ্রেপ্তারের ঘটনায় আমেরিকা, কানাডা, ব্রিটেন, জাতিসংঘ মহাসচিব, রয়টার্সের প্রধান সম্পাদকসহ বিশ্বজুড়ে সাংবাদিক ও মানবাধিকার সংস্থাগুলো কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছে মিয়ানমার।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন