শিরোনাম :

ঘুরে আসুন দর্শনীয় স্থান


শুক্রবার, ১১ মে ২০১৮, ০২:১৯ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ঘুরে আসুন দর্শনীয় স্থান

ডেস্ক প্রতিবেদন: সপ্তাহের শেষদিন ছুটির দিনে ঘুরে আসতে পারেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা দর্শণীয় স্থানে। সঙ্গী হতে পারে বন্ধু-বান্ধব বা কাছের কেউ।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর অপার সম্ভাবনাময় চিরসবুজ বাংলায় রয়েছে হাজারও দর্শণীয় স্থান। বাংলাদেশের যে প্রান্তেই যান না কেন সব জায়গাতেই রয়েছে মনকাড়া দর্শনীয় সব প্রত্নতত্ত্ব ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মণ্ডিত স্থান। হাজারও সব দর্শণীয় স্থান সমূহের মধ্যে কিছু জনপ্রিয় ভ্রমন স্পট ও পর্যটন কেন্দ্রের নাম তুলে ধরা হল। চলুন এক নজরে বাংলাদেশের দর্শণীয় স্থান সমূহ সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন।

সৌন্দর্য পিপাসুরা সবাই যে দর্শণীয় স্থানের কাছাকাছি আছেন তাও না। আবার আপনার কাছেই হয়তো দেখার মতো অনেক সুন্দর জায়গা আছে সেটা জানা ছিল না।এই ছুটিকে কাজে লাগাতে কে কোথায় যেতে পারেন সে সিদ্ধান্ত নিজেকেই নিতে হবে।

যারা ঢাকায় আছেন, ব্যস্ত নগরীতে এতটুকু ফাঁক ফোকর নেই নিঃশ্বাস ফেলার। ছুটির দিনগুলো হলে ফাঁকা জায়গা গুলো বেশি জনপূর্ণ হয়ে যায়। অর্থাৎ ভাবনার বিপরীত দৃশ্য। তবে পরিবারের সদস্য বা বন্ধুদের নিয়ে যেতে পারেন আহছান মঞ্জিল, বিমানবন্দর এলাকা, শিশুপার্ক, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে, চন্দ্রিমা উদ্যান, রমনা লেক-রমনা পার্ক, আওরঙ্গবাদ দুর্গ-লালবাগ, ধানমণ্ডি লেক, শিশুমেলা, বাসাবো বৌদ্ধমন্দির বা হাতির ঝিল। জনগণের উপচে পড়া ভিড় থাকলেও একটা উৎসবের হাওয়া বইবে সবার মাঝে। এগুলো দেখেও আপনার মন ভালো হয়ে যেতে বাধ্য।

ঢাকা বা ঢাকার আশেপাশে যারা আছেন তারা এই প্রাকৃতিক সৌন্দয্যে ঘেরা জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়েও ঘুরে আসতে পারেন। লাল শাপলার লেকে অতিথি পাখির কিচির মিচির আপনাকে বেলা ভুলিয়ে করে দেবে আনমনা। ইচ্ছে করবে তাদের সঙ্গে ডানা মেলে উড়তে। হাতে সময় থাকলে জাতীয় স্মৃতিসৌধও দেখে আসতে পারেন। সময়টা বেশ ভালো কাটবে।

যারা শহরে বাস করেন তারা ঘুরে আসতে পারেন গ্রাম থেকে।দৃষ্টিজুড়ানো হলুদ সরিষা ফুল আপনাকে ডাক পাঠিয়েছে হয়তো অনেক আগেই, কিন্তু কাজের ভিড়ে তা টের পাননি।ছুটিতে তাকে দিন না একটু সাড়া..

ছুটিতে কেউ ছুটছেন কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে। হিমছড়ি, সোনাদিয়া দ্বীপ, ইনানী, প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন, মাথিনের কূপ, বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক সবই থাকতে পারে দর্শণের তালিকায়। কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতও দেখে আসা যায় দুদিনের এই ছুটিতে। সমুদ্রের নির্মল বাতাসে পুরোনো বছরের ক্লান্তি ঝেড়ে ফেলার এ এক দারুণ সুযোগ। ফুরফুরে দেহমন আর মজার সব খাবার উপভোগের মধ্য দিয়ে নতুন প্রত্যয়ে শুরু হোক।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন