শিরোনাম :

রেশনের দোকানে স্যানিটারি প্যাড বিতরণ


মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮, ০৯:১৫ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

রেশনের দোকানে স্যানিটারি প্যাড বিতরণ

তাপস প্রামাণিক: ঋতুমতী নারীদের স্বাস্থ্য-সুরক্ষায় নয়া উদ্যোগ কেন্দ্রীয় সরকারের। অদূর ভবিষ্যতে রেশন দোকান থেকেই পাওয়া যাবে স্যানিটারি প্যাড। সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে রাজ্যগুলিকে অনুরোধ করেছে ভারত। মূলত দারিদ্রসীমার নীচে বসবাসকারী নারীদের হাতে স্বল্পমূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন তুলে দিতেই রেশনের মতো গণবণ্টন ব্যবস্থাকে হাতিয়ার করতে চাইছে কেন্দ্র।

সরকারি সূত্রের খবর, কয়েক দিন আগেই রাজ্য সরকারকে চিঠি দিয়ে রেশনের মাধ্যমে স্যানিটারি প্যাড বিলির প্রস্তাব দিয়েছে কেন্দ্রীয় খাদ্য সরবরাহ মন্ত্রক।

তাতে তারা জানিয়েছে, জাতীয় শিশু সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বয়ং এ নিয়ে দরবার করেছেন। মহিলাদের সম্ভ্রম এবং স্বাস্থ্য রক্ষায় বিষয়টিকে ইতিমধ্যে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের অন্তর্ভুক্ত করেছে কেন্দ্রীয় পানীয় জল ও স্যানিটেশন মন্ত্রক। বিভিন্ন রাজ্য সরকারও এগিয়ে এসেছে। হরিয়ানা সরকার রাজ্যের সমস্ত সরকারি স্কুলে ছাত্রীদের মাত্র এক টাকায় স্যানিটারি প্যাড বিলি করছে। রেশন দোকান থেকেও সস্তায় স্যানিটারি ন্যাপকিন বিলি করা হচ্ছে। মহিলাদের মধ্যে স্যানিটারি ন্যাপকিনের ব্যবহার বাড়াতে সেটাকেই রোল মডেল করতে চাইছে কেন্দ্র। তার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যকে চিঠি দিয়েছেন কেন্দ্রীয় খাদ্য দপ্তরের আন্ডার সেক্রেটারি রাজেন্দ্রকুমার পোদ্দার।

মোদী সরকারের এই উদ্যোগকে সাধারণ ভাবে সবাই সাধুবাদ জানালেও এর পিছনে রাজনীতির গন্ধও পাচ্ছেন অনেকে। কর্নাটক বিধানসভা নির্বাচনের আগে ঠিক একই রকম প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল রাজ্য বিজেপি। তারা আশ্বাস দিয়েছিল, ক্ষমতায় এলে স্কুলছাত্রী এবং গরিব মহিলাদের বিনা পয়সায় স্যানিটারি প্যাড বিলি করবে। কংগ্রেসের তরফেও স্কুল-কলেজের ছাত্রীদের নিখরচায় স্যানিটারি প্যাড বিতরণ এবং কর ছাড়ের আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল। কেন্দ্রের নয়া উদ্যোগের পিছনে লোকসভা ভোটের অঙ্ক দেখছেন বিরোধীরা। তবে চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, ঋতুস্রাবের সময় অস্বাস্থ্যকর জিনিসপত্র ব্যবহার মহিলাদের সার্ভিক্যাল ক্যানসারের অন্যতম কারণ। তা থেকে রেহাই পেতে পরিচ্ছন্ন স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছেন তাঁরা। কিন্তু সামর্থ্যের অভাবে অনেক ভারতীয় মহিলাই স্যানিটারি ন্যাপকিন কিনতে পারেন না। সে কথা মাথায় রেখেই বিষয়টিকে কেন্দ্রীয় স্বচ্ছ ভারত অভিযানের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

সুনির্দিষ্ট নির্দেশিকাও জারি করেছে কেন্দ্রীয় পানীয় জল ও স্যানিটেশন মন্ত্রণালয়। এই উদ্যোগকে আরও ছড়িয়ে দিতেই রেশনে স্যানিটারি প্যাড বিলির পরিকল্পনা মোদী সরকারের। রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সন অনন্যা চক্রবর্তীও মনে করছেন, রেশন থেকে স্যানিটারি প্যাড বিলি হলে সাধারণ মহিলারা বিশেষ ভাবে উপকৃত হবেন।

রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘আমি এই ধরনের কোনও চিঠি এখনও হাতে পাইনি। এ ব্যাপারে প্রস্তাব এলে সরকার সেটা বিবেচনা করবে। তার পর আমাদের জানাবে। সেই মতো খাদ্য দপ্তর পদক্ষেপ করবে।’ রাজ্য খাদ্য ও সরবরাহ দপ্তরের প্রধান সচিব মনোজ আগরওয়াল বলেন, ‘এখন পুজোর ছুটি চলছে। এর মধ্যে কোনও নির্দেশিকা এসেছে কি না, বলতে পারব না। অফিস খুললে নিশ্চয়ই খোঁজ করব।’

নারী, শিশুবিকাশ এবং সমাজকল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী শশী পাঁজা বলেন, ‘প্রস্তাবটা ভালো। কিন্তু খরচটা কে দেবে, সেটাই প্রশ্ন। আমরা আমাদের হোমগুলিতে মেয়েদের বিনা পয়সায় স্যানিটারি ন্যাপকিন সরবরাহ করি। হোমের মেয়েদের দিয়ে স্যানিটারি প্যাডও বানানো হচ্ছে। পুরুলিয়ায় স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের কাজে লাগিয়ে স্যানিটারি ন্যাপকিন বানিয়ে আশা কর্মীদের দিয়ে আশপাশের গ্রামগুলিতে স্বল্প দামে বিলিও করা হচ্ছে। স্বাস্থ্য এবং স্কুল শিক্ষা দপ্তরও স্কুল ছাত্রীদের স্যানিটারি প্যাড বিলি করছে। রাজ্যের ছ’টি জেলায় স্যানিটারি ন্যাপকিন বিলির পরিকল্পনা নিয়েছি আমরা।’

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন