শিরোনাম :

টিফিনে পাওয়া গেল ১ কোটি ৭০ লাখ টাকা!


শুক্রবার, ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ০৪:০৩ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ডেস্ক: প্রায় ৭২ বছর আগের তামার তৈরি একটি মুদ্রার নিলাম হল চড়া দামে। সেই সময় যুক্তরাষ্ট্রের পিটসফিল্ডে স্কুল ক্যাফেটরিয়ায় টিফিন কিনে ফেরত টাকা হিসেবে ওই মুদ্রাটি পেয়েছিলেন জন লুটস জুনিয়র নামের ১৬ বছরের এক কিশোর।

রাষ্ট্রপক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, ভুলবশত কয়েনটি তৈরি করেছিল টাকশাল। আর ৭২ বছর পর সেই ‘ভুল’ কয়েনেরই নিলামে দাম উঠল ২ লক্ষ ৪ হাজার ডলার! যা টাকার মানে এক কোটি ৭০ লাখ! জানা গেছে, ১৯৪৩ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় যুদ্ধচলাকালীন বিভিন্ন যুদ্ধসামগ্রীতে তামার ব্যবহার বেড়ে যাওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রে দস্তার প্রলেপ লাগানো স্টিলের কয়েন ছাপানো হত ।

কিন্তু সেই সময় যুক্তরাষ্ট্রের টাকশালে ভুলবশত ২০টি তামার মুদ্রা তৈরি হয় এবং আব্রাহাম লিংকনের ছাপসহ ওই কয়েনগুলো বাজারে বেরিয়েও যায়।

সরকার পক্ষ থেকে গুজব রটানো হয়, এই লিঙ্কন মুদ্রাগুলো ভুলবশত ছাপা হয়েছে এবং মুদ্রাগুলো ফেরত দিলে প্রতি মুদ্রার জন্য একটি করে ফোর্ড মোটর কোম্পানির গাড়ি দেওয়া হবে।

এমন লোভনীয় গুজবে চারিদিকে হইচই পড়ে যায়। খোঁজ শুরু হয় তামার তৈরি ওই ২০টি মুদ্রার।

এ সময় নকল তামার মুদ্রাতেও বাজার ছেয়ে যায়।

খবরটি জন জেনে ট্রেজারি এবং ফোর্ড মোটর কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারে, তামার মুদ্রার পরিবর্তে গাড়ি দেওয়ার প্রস্তাবের পুরোটাই গুজব।

তাই টিফিন কিনে পাওয়া ওই লিংকন মুদ্রাটি নিজের কাছেই রেখে দেন জন।

তবে ৭২ বছর পরে জন বিরল ওই মুদ্রাটি বিক্রি করে দিতে নিলামে তোলেন। যদিও জীবদ্দশায় তা আর বিক্রি হয়নি। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মারা যান জন।

গত ১০ জানুয়ারি জনের সংগ্রহের ওই মুদ্রা নিলামে ওঠে ২ লক্ষ ৪ হাজার ডলার বা বিক্রি হয়।

কয়েন বিক্রির ওই টাকা পিটসফিল্ড-এ যে লাইব্রেরিতে কাজ করতেন জন তার উন্নয়নে ব্যবহার করা হবে বলে জানা গেছে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন