শিরোনাম :

প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা উচ্চাভিলাষী


শুক্রবার, ৩ জুন ২০১৬, ০৫:৫৩ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা উচ্চাভিলাষী

নিজস্ব প্রতিবেদক: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা উচ্চাভিলাষী।

শুক্রবার বিকেল ৪টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, গত বছরে রাজস্ব আদায় ছিল নিম্নমানের। কিন্তু যদি আগের বছরে দেখেন সেটা সব সময় দুই ডিজিটের বেশি ছিল। গতবারে কম হয়েছে। রাজস্ব আদায়ের ক্ষমতা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি করা হয়েছে। নতুন নতুন অফিস হয়েছে, জনবল নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী প্রারম্ভিক বক্তব্য না দিয়ে প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ নিয়ে কথা বলেন। এ সময় তিনি কয়েকটি সংবাদের সমালোচনা করেন।

এরপর অর্থমন্ত্রী উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রস্তাবিত বাজেটের বিভিন্ন দিক নিয়ে প্রশ্ন করার আহ্বান জানান।

এই সময় বিএনপি কোনো দলই না বলে মন্তব্য করেন অর্থমন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বাজেটের ব্যাপারে সাধারণত দুই ধরনের বিশ্লেষণ পাওয়া যায়। একটি প্রতিক্রিয়াশীল বিশ্লেষণ’ আরেকটি হচ্ছে প্রগতিশীল বিশ্লেষণ। বিএনপি আগের মতো এবারও বাজেট নিয়ে প্রতিক্রিয়াশীল মন্তব্য করছে। মূলত রাজনীতির প্রতি দায়িত্বশীল আচরণ না থাকার কারণেই তারা এমন মন্তব্য করে আসছে।

এদিকে সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেয়া বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদও একই ধরনের মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, বাজেট নিয়ে বিএনপির প্রতিক্রিয়া সত্যিই দুঃখজনক। বাজেট হয়েছে প্রগতিশীল ধারায় আর বিএনপি মন্তব্য করেছে প্রতিক্রিয়াশীল ধারায়।

এই বাজেটটি গণমুখী দাবি করে তোফায়েল আহমেদ আরো বলেন, বিএনপির যিনি বা যে নেত্রী বাজেট নিয়ে এ এমন মন্তব্য করেছেন, তিনি হয়ত বাজেট বক্তৃতা শোনেননি অথবা পড়েননি। অনেকেই বলেন, বাজেট উচ্চবিলাসী। বাস্তব কথা হচ্ছে উচ্চবিলাসী না হলে উপরে ওঠা যায় না। যেমন, বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীনের স্বপ্ন দেখেছিলেন বলেই বাংলাদেশ পেয়েছি। তখন অনেকেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে উচ্চবিলাসী বলে মন্তব্য করেছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান, প্রধানমন্ত্রীর অর্থ উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমানসহ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ৭ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

প্রস্তাবিত বাজেটে ব্যয় প্রাক্কলন করা হয়েছে ৩ লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকা, যা জিডিপির ১৭ দশমিক ৪ শতাংশ এবং মোট রাজস্ব আয় প্রাক্কলন করা হয়েছে ২ লাখ ৪২ হাজার কোটি টাকা, যা জিডিপির ১২ দশমিক ৪ শতাংশ। এতে ঘাটতি ধরা হয়েছে ৯৭ হাজার ৮৫৩ কোটি টাকা।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন