শিরোনাম :

পর্যবেক্ষণের জন্য আবেদন ২১ নভেম্বরের মধ্যে


শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৮:৫৬ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

পর্যবেক্ষণের জন্য আবেদন ২১ নভেম্বরের মধ্যে

ঢাকা: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য নিবন্ধিত ১১৮ স্থানীয় পর্যবেক্ষক সংস্থাকে আগামী ২১ নভেম্বরের মধ্যে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আবেদন করতে হবে।

শনিবার ইসির সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) আশাদুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘আগামী ২১ নভেম্বরের মধ্যে নিবন্ধিত পর্যবেক্ষণ সংস্থাকে আবেদন করতে হবে। আবেদনপত্রে কোথায়, কতজন নিয়োজিত থাকবে তা উল্লেখ করতে হবে।’

ইসি সূত্র জানায়, সর্বশেষ দশম সংসদ নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ না থাকায় পর্যবেক্ষকও কম ছিল। এবার একাদশ সংসদ নির্বাচনে সব দল অংশগ্রহণে ভোটের পরিবেশের মধ্যে পর্যবেক্ষকদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে।

এর আগে ২০০৮ সালের নবম সংসদ নির্বাচনে ৫৯৩ জন বিদেশি ও ১ লাখ ৫৯ হাজার ১১৩ জন স্থানীয়, ২০০১ সালে ২২৫ জন বিদেশি ও দেশি ২ লাখ ১৮ হাজার জন, ১৯৯৬ সালে প্রায় ৪০ হাজার দেশি ও বিদেশি ২৬৫ জন এবং ১৯৯১ সালে ৩০ হাজার দেশি ও ৫৯ জন বিদেশি ভোট পর্যবেক্ষণ সংসদ নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করেন।

ইসি সূত্র জানায়,পর্যবেক্ষক সংস্থাকে নীতিমালা মেনে নির্ধারিত ফরমে এ সংক্রান্ত আবেদন করতে সংশ্লিষ্ট ১১৮টি সংস্থাকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। আগামী ২০ নভেম্বর ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে ব্রিফিং করবেন। এতে সংস্থাগুলোকে বৈঠকে আসার আমন্ত্রণ জানানো হবে।

বিদেশি পর্যবেক্ষক সংস্থা ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে প্রয়োজনীয় কাজ শেষ করবে বলেও ইসি সূত্র জানক গেছে।

এছাড়াও দেশি-বিদেশি সাংবাদিকদের সংবাদ সংগ্রহে অনুমোদিত কার্ড সরবরাহ প্রক্রিয়াও ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে শুরু হবে। সর্বশেষ দশম সংসদ নির্বাচনে ১২ টি দল অংশ নেয়। বিএনপির বর্জনের মুখে ১৫৩ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন একক প্রার্থীরা।

বাকি ১৪৭ আসনে ভোট হয় ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি।

বর্তমানে ইসির ১১৮টি সংস্থা নিবন্ধিত রয়েছে। তবে গত দেড় যুগ ধরে পর্যবেক্ষণে থাকা ফেমা ও ব্রতী তালিকায় নেই। সম্প্রতি বাদ পড়েছে অধিকারও।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ৩০ ডিসেম্বর ভোট হবে। এর আগে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত মনোনয়ন জমার শেষ সময়, ২ ডিসেম্বর বাছাই ও ৯ ডিসেম্বর প্রত্যাহারের শেষ সময়।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন