শিরোনাম :

আদালতে খালেদা জিয়া


বৃহস্পতিবার, ২ জুন ২০১৬, ১১:৫১ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

আদালতে খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক: জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের হাজিরা দিতে আদালতে পৌঁছেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। আদালতে পৌঁছে আত্মপক্ষ সমর্থনের আগে সময়ের আবেদন করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে গুলশানের বাসভবন থেকে আদালতে পৌঁছেন তিনি।

সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে খালেদা জিয়া বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদ্দারের আদালতে পৌঁছান বলে জানিয়েছেন তার প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান। অস্থায়ী এই আদালতেই জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচারিক কার্যক্রম চলছে।

খালেদা জিয়ার আদালতে আগমন উপলক্ষ করে বকশীবাজার মোড় থেকে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত আদালত পর্যন্ত এলাকায় পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। এসব এলাকায় জনসাধারণের চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। একই সঙ্গে যানবাহন চলাচলও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আদালত প্রাঙ্গণে আছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপির সহসভাপতি আবদুল্লাহ আল নোমান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল আউয়াল মিন্টু, বিএনপি নেতা খায়রুল কবির খোকন প্রমুখ। আইনজীবী হিসেবে আছেন এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন, নিতাই রায় চৌধুরী প্রমুখ। কিছুক্ষণের মধ্যে আদালতে আসবেন খন্দকার মাহবুব হোসেন ও ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদার আত্মপক্ষ সমর্থনের সর্বশেষ তারিখ ছিলো গত ১৯ মে। কিন্তু অসুস্থতার কথা বলে তার আইনজীবীরা সময়ের আবেদন করলে শুনানি পিছিয়ে যায়। সেদিনই বিচারক জানিয়ে দেন, ২ জুন আদালতে অনুপস্থিত থাকলে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হবে।

এর আগে ৭, ১৭, ২৫ এপ্রিল ও ৫ মে চার দফা খালেদার সময়ের আবেদনে তার আত্মপক্ষ সমর্থন পিছিয়ে যায়।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে আসা অবৈধভাবে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০১০ সালের ৮ অাগস্ট তেজগাঁও থানায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে এই মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

খালেদা জিয়া ছাড়া এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন, তার প্রাক্তন রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছের তখনকার সহকারী একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএ-এর নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার প্রাক্তন মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

এমএল

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন