শিরোনাম :

'বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রচারণা'


বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০১৬, ১২:১৮ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

'বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রচারণা'

দ্রুতগতি উন্নয়নের দিকে যাচ্ছে বাংলাদেশ। যা বিশ্ব পরিমণ্ডলে তাক লাগিয়েছে। অর্থনীতি ও খেলাসহ অনেক দিক দিয়ে বিশ্ববাসীকে তাক লাগিয়ে দেওয়ায় সবার চোখে পড়েছে বাংলাদেশে। এসব কারণে প্রচারণা করছে কয়েকটি বিদেশি সাইট। এতে জঙ্গিদের সাইট 'সাইট' ও 'আমাক' ব্যবহার করছে। আর কিছু বিকারগ্রস্থ যুবকদের ব্যবহার করার চেষ্টা করছে কিছু স্বার্থান্বেষী। ধারণা করে এমন অভিযোগ করেছেন সাংবাদিক মামুন কবির।

আজ বুধবার ভারতীয় একটি গণমাধ্যম প্রকাশ করেছে, নতুন করে ফের বাংলাদেশে হামলা চালাতে পারে ইসলামিক স্টেট(আইএস)। এবার তাদের টার্গেটে রয়েছে বেশ কিছু কূটনীতিক-ক্রীড়াবিদ আর পর্যটকরা। বিশ্বের জঙ্গি কার্যক্রম নজরদারিতে নিযুক্ত বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ‘সাইট ইন্টেলিজেন্সে’র ওয়েবসাইটে বাংলাদেশে আইএস-এর নতুন হামলার হুমকির খবর দেওয়া হয়েছে। এর আগে আইএসের কথিত সংবাদ সংস্থা ‘আমাক’ নিউজ এজেন্সির বরাত দিয়ে ‘সাইট ইন্টিলিজেন্সে’র ওয়েবসাইটে আইএসের ভিডিও প্রকাশিত হয়।

সাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দাবি করেছে, আইএসের কথিত ম্যাগাজিন রুমাইয়াহ-র দ্বিতীয় সংখ্যায় গুলশান হামলার সন্দেহভাজন ‘মাস্টারমাইন্ড’ তামিম চৌধুরীর নামে একটি লেখা প্রকাশিত হয়েছে। এই লেখায় নতুন হামলার হুমকির প্রসঙ্গ উঠে এসেছে।

উল্লেখ্য, রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে ১ জুলাই জঙ্গি হামলার আগে একটি ভিডিও আইএসের সংবাদ সংস্থা আমাকের নাম করে সাইটে প্রকাশ করা হয়। সর্বশেষ প্রকাশিত ১৪ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে পাঁচ জঙ্গির ছবিসহ একটি বর্ণনা আরবি ও বাংলা ভাষায় তৈরি করা হয়। গুলশানে হামলার কারণ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে ভিডিওতে বলা হয়েছে, মুসলিম মহিলা, পুরুষ ও শিশুদের রক্তে রঞ্জিত ক্রুসেডাররা মুসলিমদের প্রতি তাদের চরম উপহাস হিসেবে বাংলাকে তাদের মনোরঞ্জনের স্থান হিসেবে বেছে নেয়। তাই তারা ৫ জন ঢাকার গুলশানে হামলা চালিয়েছিল। এবার সাইট ইন্টিলিজেন্সের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত রুমাইয়াহ-র দ্বিতীয় সংখ্যায় তামিমের নোটে লেখা সেই লেখায় গুলশান হামলার ন্যায্যতা দাবি করা হয়েছে।

বাংলাদেশকে পিছনে ঠেলে দিতেই কী বিশ্ব পরিমণ্ডল বদ্ধপরিকর?

এ হোসেন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন