শিরোনাম :

বরিশালে আ’লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত হচ্ছেন এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ!


শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৭, ০৫:২৪ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বরিশালে আ’লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত হচ্ছেন এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ!

বরিশাল প্রতিনিধি: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল সদর আসনে সাংসদ জেবুন্নেছা আফরোজ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত হচ্ছেন- এমন গুঞ্জন সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে। বিশেষ করে কেন্দ্রে চুড়ান্ত মনোনয়ন তালিকায় তার নাম স্থান না পাওয়ায় এই গুঞ্জন ক্রমশই ডালপালা মেলতে শুরু করেছে। যদিও ওই চুড়ান্ত মনোনয়ন তালিকায় বরিশাল ১ আসনের সাংসদ আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, তালুকদার মো. ইউনুস এবং সাংসদ পঙ্কজ দেবনাথ স্থান পেয়েছেন।

সম্প্রতি আসন ভিত্তিক জরিপ শেষে ফলাফল বিশ্লেষণ করে সারাদেশের ১৫১ প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে কেন্দ্র। সেই তালিকায় বরিশালের ৬টি আসনের তিনটিতে প্রার্থীদের নাম প্রকাশ পেলেও বাকী সদর আসনসহ ৩টি এখনও ঘোষণা হয়নি। কিন্তু বাকী তিনটি ঘোষণার আগেই বরিশাল সদর আসন থেকে সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা শওকত হোসেন হিরনের স্ত্রী বর্তমান সাংসদ জেবুন্নেছা আফরোজ মনোনয়ন পাচ্ছেন কী না তা নিয়ে চলছে নানা হিসেব নিকাশ।

তাছাড়া বাকী আসন অর্থাৎ বাবুগঞ্জ মুলাদী ২ ও বাকেরগঞ্জ ৬ আওয়ামী লীগের টিকিটে কে আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীতা করবেন তা নিয়েও চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। এই বাস্তবতায় জেবুন্নেছা দলটি থেকে মনোনয়ন পাচ্ছেন বা পাবেন কী না এমন প্রশ্নে অনুসারীরা রয়েছেন শঙ্কায়। যদিও এমন গুঞ্জনের প্রেক্ষিতে বিরোধী শিবিরের নেতাকর্মীরা মাঠে বলে বেড়াচ্ছেন আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল সদর অর্থাৎ ৫ আসনে নতুন কোন প্রার্থী আসতে পারেন। সেই সাথে বাকি দুটি আসনেও আসতে পারেন নতুন মুখ।

এক্ষেত্রে তাদের ভাষ্য হচ্ছে- জেবুন্নেছার মনোনয়নের বিষয়টি পুরোপুরি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ওপরে নির্ভর করছে। কারণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মহানগর আ’লীগ নেতা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল¬াহ ও কর্নেল জাহিদ ফারুক শামীমের অংশ নিতে সমানভাবে দৌড়ঝাপ করছেন। তাদের মধ্যে সাদিক যদি কর্পোরেশনে আ’লীগের প্রার্থীতা পান তাহলে কর্নেল সদর আসনে প্রার্থীতা লাভের সম্ভবনা রয়েছে। কারণ এই নেতার পক্ষ বিশেষ মহলের সুপারিশ থাকায় নেত্রী শেখ হাসিনারও সুদৃষ্টি রয়েছে এমন কথা মাঠে চাউর রয়েছে।

সুতরাং জেবুন্নেছা আ’লীগের মনোনয়ন বঞ্চিতের বিষয়টি গুঞ্জন হলেও সর্বত্র আলোচনার খোরাক জুগিয়েছে। অবশ্য অঘোষিত বরিশাল সদরসহ বাকি তিনটি আসন নিয়ে কেন্দ্রেও চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছে।

এমতাবস্থায় কেন্দ্রীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে- গণভবনে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে একান্ত আলাপে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা নিজেই একাধিকবার প্রার্থী জরিপের কথা জানিয়েছেন। সেই অনুসারে ২০০ আসনে প্রার্থী জরিপ শেষে ১৫১ জনের মনোনয়ন প্রাথমিকভাবে চূড়ান্ত করা হয়েছে। মূলত সেই তালিকায় বরিশাল ১ আসনে আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, ২ আসনে অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস এবং ৪ আসনে পঙ্কজ দেবনাথের বিষয়টি প্রকাশ পায়।

অবশ্য আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডেন সদস্য সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ সাংবাদিকদের বলছেন,বিভিন্ন জরিপের ভিত্তিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ চলছে। ইতোমধ্যে বেশকিছু আসনে প্রার্থী বাছাই সম্পন্ন হয়েছে। প্রথমে ১৬০টি আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করব। এটি হবে দুই ধাপে। প্রথম ধাপে ১০০, পরবর্তী ধাপে ৬০ প্রার্থী। কিন্তু যে সব আসনে প্রথম ধাপে প্রার্থী নাম ঘোষণা হয়নি সেগুলোতে নতুন মুখ আসার সম্ভবনাই বেশি।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন