শিরোনাম :

ছাত্রলীগ নেতাকে জুতাপেটা করে পুলিশে দেয়ার হুমকি এমপি ফারুকের


সোমবার, ১৩ আগস্ট ২০১৮, ০৮:৩৯ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ছাত্রলীগ নেতাকে জুতাপেটা করে পুলিশে দেয়ার হুমকি এমপি ফারুকের

রাজশাহী: ইতিপূর্বে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর করে ব্যাপক আলোচনায় আসেন রাজশাহী ১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের বহুল আলোচিত এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী। আবারও ছাত্রলীগ নেতাকে জুতাপেটা করে পুলিশে দেয়ার হুমকি দিলেন তিনি।

সোমবার দুপুরে মুণ্ডুমালা পৌরসভা কার্যালয়ে জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি কাজী রুবেল রানাকে এমপি ফারুক এ হুমকি দেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এমপি ফারুকের রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুণ্ডুমালা পৌরসভার মেয়র গোলাম রাব্বানীর পক্ষে কাজী রুবেল রানা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় ক্ষুব্ধ হন এমপি ফারুক। এছাড়া রাব্বানীর অন্য সমর্থকদেরও এমপি ফারুক দেখে নেয়ার হুমকি দেন।

এদিকে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়। তাদের মধ্যে ক্ষোভ এবং অসন্তোষের সৃষ্টি হয়।

তারা বলছেন, এমপি ফারুক চৌধুরীর দাম্ভিকতা, অহংকার, অসৌজন্যমূলক আচরণ এবং দলের ভেতরে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষদের প্রতি নিপীড়নমূলক মনোভাবের কারণে নেতাকর্মীরা তার কাছ থেকে দূরে সরে যাচ্ছেন। এছাড়া এমপির এ ধরনের আচরণে সাধারণ ভোটারদের মনেও তার সম্পর্কে বিরূপ মনোভাবের জন্ম নিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১২ আগস্ট রোববার দুপুরে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী মুণ্ডুমালা পৌরসভায় দুস্থদের মধ্যে ভিজিএফ চাল বিতরণ কর্মসূচি উদ্বোধন করে মেয়রের কক্ষে যান।

এরপর সেখানে এমপি ফারুক তার সমর্থিত নেতাকর্মীদের সামনে রুবেলকে জুতা দিয়ে পিটিয়ে পুলিশে তুলে দেয়ার হুমকি দেন। শুধু তাকেই না, যারা মেয়র রাব্বানীর পক্ষে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন এবং সমর্থন করেন তাদের সবাইকে পিটিয়ে পুলিশে দেয়ার হুমকি দেন এমপি ফারুক।

বিষয়টি একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। তবে এ ব্যাপারে এমপি ফারুকের নির্যাতনের ভয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে নাম প্রকাশ করতে চাননি নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি কাজী রুবেল রানা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এমপি আমাদের অভিভাবক। আমরা তার সন্তানতুল্য। আমার ভুল থাকলে তিনি গোপনে ডেকে নিয়ে বলতে পারতেন। এটি না করে এমপি সবার সামনে আমাকে অপমান করেছেন। ভয় দেখিয়েছেন। এ ধরনের আচরণ তার কাছে আশা করিনি।

তিনি বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং মুণ্ডুমালা পৌরসভার মেয়র গোলাম রাব্বানী রাজশাহী-১ আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশী। আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গসংগঠনের অনেক নেতাকর্মী গোলাম রাব্বানীর পক্ষে কাজ করছেন। বিষয়টি রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী মেনে নিতে পারছেন না। এ কারণে তিনি ভয় দেখিয়ে রাব্বানী সমর্থকদের নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা করছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত জানুয়ারিতে তানোর উপজেলা সদরে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এমপি ফারুক চৌধুরীর কর্মসূচিতে উপস্থিত না হয়ে পৃথক কর্মসূচি পালন করে উপজেলা ছাত্রলীগ। এ অপরাধে ছাত্রলীগের মঞ্চ সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে নিজে ভেঙে ফেলেন এমপি ফারুক। মারধর করেন তানোর উপজেলা ছাত্রলীগের তৎকালীন সভাপতি আল হাসানুল কবির রবিন সরকারকে। এরপর তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

পরবর্তীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ এবং গোলাম রাব্বানীর হস্তক্ষেপে রবিন সরকার থানা থেকে ছাড়া পান। ওই সময় বিষয়টি নেতাকর্মীদের ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে।

এ ব্যাপারে এমপি ফারুক চৌধুরীর রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনোনয়নপ্রত্যাশী গোলাম রাব্বানী বলেন, এমপি ফারুক চৌধুরী দাম্ভিক মানুষ। নেতাকর্মীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করা তার অভ্যাস। আমি ঢাকায় অবস্থান করছি। আমার অনুপস্থিতিতে তিনি আমার সমর্থকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেছেন। ভয় দেখিয়েছেন। আমার পক্ষে যেসব নেতাকর্মী কাজ করছেন তাদের নির্যাতন ও মামলার ভয় দেখাচ্ছেন। এর ফলে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।

এমপি এ ধরনের আচরণ অব্যাহত রাখলে নেতাকর্মীরা তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলবেন বলে মন্তব্য করেন গোলাম রাব্বানী।

বক্তব্যের জন্য এমপি ফারুক চৌধুরীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু ফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি। তবে তানোরে এমপি ফারুক চৌধুরীর প্রধান রাজনৈতিক সহযোগী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না বলেন, দীর্ঘদিন ধরে একটি মহল এমপির বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আর এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন ছাত্রলীগ নেতা কাজী রুবেল রানা। পৌরসভা কার্যালয়ে এমপির সামনে কাজী রুবেল পড়ায় এমপি তাকে সামান্য বকাবকি করেছেন।

তিনি বলেন, এমপি ফারুক আমাদের অভিভাবক। তিনি নেতাকর্মীদের একটু বকাবকি করতেই পারেন। ভুল করলে তিনি আমাদেরও বকাবকি করেন। জুতাপেটা করে পুলিশে দেয়ার অভিযোগ সঠিক না। একটু বকাবকি করার কারণে গোলাম রাব্বানীর সমর্থকদের গাত্রদাহ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন এ যুবলীগ নেতা।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন