শিরোনাম :

‘সংসদীয় শাসন থেকে জনগণকে বঞ্চিত করা হয়েছে’


শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৪:৪৩ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

‘সংসদীয় শাসন থেকে জনগণকে বঞ্চিত করা হয়েছে’

ঢাকা: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, গত পাঁচ বছরে আমরা কোনো গণতন্ত্র দেখতে পাইনি। জনগণের শাসন থেকে আমাদের বঞ্চিত করা হয়েছে, গণতন্ত্র থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে, সংসদীয় শাসন থেকে জনগণকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

শনিবার সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণে জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. কামাল আরও বলেন, ‘এবার আর নির্বাচন বয়কট-টয়কট হবে না। একবার বয়কট করাই জাতি অনেক ভোগান্তি পেয়েছে। এ সরকারের লাজলজ্জা বলতে কিছু নেই। যদি থাকতো তাহলে বিনা ভোটে এতদিন ক্ষমতায় থাকতে পারতো না।’

‘৫ জানুয়ারি ২০১৪ নির্বাচনের পরে কোর্টে মামলা হয়েছিল। তখন আওয়ামী লীগ কোর্টে বলেছিল, এটা পরিস্থিতি মোকাবেলা করার নির্বাচন, দ্রুত আরেকটি নির্বাচন দেয়া হবে।’

‘তখন কোর্ট আমাকে অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে ডেকেছিলেন। কোর্ট আমার কাছে জানতে চেয়েছিলেন ওই নির্বাচন নিয়ে। তখন আমি বলেছিলাম, এক কথায় বললে তো বলা যায়, এটা কোনো নির্বাচন না। কিন্তু, তারা যখন বলছে পরিস্থিতির কারণে নির্বাচন করেছে, দ্রুত আরেকটি নির্বাচন করবে। তাই সুযোগ দেয়া উচিত।’

গণফোরামের চেয়ারম্যান বলেন, ‘এখন কথা হচ্ছে, দ্রুত নির্বাচন মানে কি ৫ বছর? এটা কি বাংলা অভিধানে নতুন করে যুক্ত হওয়া শব্দ। অল্প মানে ৫ বছর। ভাওতাবাজির সীমা থাকা উচিত। ভাওতাবাজিতে তাদের গোল্ড মেডেল দেয়া উচিত। আমরা এখন ভাওতাবাজি থেকে মুক্তি পেতে চাই।’

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই। তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে পরিত্যক্ত জেলখানায় রেখে নির্বাচন হতে পারে না। একজন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচন করবেন, অন্যজন জেলখানায় থাকবেন, এটা হতে পারে না।’

নেতাকর্মীদেরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করে গণফোরাম সভাপতি বলেন, ‘সারা দেশে হাজার হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হচ্ছে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলাম, অন্যায় গণগ্রেফতারের কথা বললাম। প্রধানমন্ত্রী বললেন, কাল থেকে আর গ্রেফতার হবে না। কিন্তু, এখনও এই গণগ্রেফতার থামেনি।’

সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণে আজকের এই সমাবেশের প্রধান বক্তা ছিলেন বিএনপির মহাসচিব ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সভায় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক জয়নুল আবেদীন, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ শাহজাহান ওমর, চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী প্রমুখ।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন