শিরোনাম :

সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসীদের সাধারণ ক্ষমার আবেদন পদ্ধতি


শুক্রবার, ৫ অক্টোবর ২০১৮, ০২:১০ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসীদের সাধারণ ক্ষমার আবেদন পদ্ধতি

সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে মোহাম্মদ রোমেল খান: অবৈধ প্রবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ দিতে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। আগস্ট এর ১ তারিখ থেকে ৩১ অক্টোবর ২০১৮ তারিখ পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাসকারী প্রবাসীরা সাধারণ ক্ষমার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

যারা সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবৈধভাবে প্রবেশ করেছে (ওমান বা সাগর পথে) তারাও সাধারণ ক্ষমার সুযোগ পাবে, তবে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে আমিরাত ত্যাগ করতে হবে। যারা আমিরাতে অবৈধ আছেন কিন্তু বৈধ হয়ে এদেশে থাকতে চান, তাদের বিগত ইমিগ্রেশনের সকল জরিমানা মৌকুফ করা হবে। এবং আপনাকে চাকরি খোঁজার জন্য ছয় মাসের জব সিকার ভিসা দেওয়া যেতে পারে। আপনি যদি আপনার ভিসা স্ট্যাটাস পরিবর্তন করতে চান এবং নতুন ভিসার জন্য আবেদন করতে চান, তাহলে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যে কোন আমের সেন্টারে গিয়ে আবেদন করতে পারবেন। ভিসা স্ট্যাটাস পরিবর্তন এর ফি ৫২১ দিরহাম। যারা ৩১শে জুলাই ২০১৮ এর পরে অবৈধ হয়েছেন, তারা সাধারণ ক্ষমার আওতায় পড়বেন না।

বাংলাদেশ কন্স্যুলেট থেকে আউটপাস সংগ্রহ করার পরে, আপনি আপনার নিকটস্থ ইমিগ্রেশনে গিয়ে ২২১ দিরহাম ফি দিয়ে “এক্সিট পার্মিট” নিতে পারবেন। এক্সিট পার্মিট পাওয়ার ১০ দিনের মধ্যেই আপনাকে আমিরাত ত্যাগ করতে হবে। ব্ল্যাকলিষ্ট করা হয়েছে এবং যাদের বিরুদ্ধে আইনি মামলা আছে তারা অ্যামনেষ্টি/সাধারণ ক্ষমার জন্য যোগ্য নয়। ছয় মাসের জব সিকার ভিসা নিয়ে কোথাও কাজ করতে পারবেন না, প্রতারক থেকে সাবধান! ইচ্ছে করলেই আপনার নিজের কাজ সহজেই নিজে করতে পারবেন, কোনভাবে দালাল এর দ্বারা প্রতারিত হবেন না।

কোন কাজে কোথায় যেতে হবেঃ
আবির ইমিগ্রেশনঃ এক্সিট পারমিট ও তামিম ফি (যদি থাকে)

আমের সেন্টারঃ আইডি ও ভিসা টাইপিং। তামিম ফি, অবৈধ অবস্থান ফি ও অন্যান্য।
তাসহিল সেন্টারঃ ভিসা ও আইডি কেন্সেলেশন এর জন্য। ইমিগ্রেশন প্রিন্ট আউট এর জন্যঃ ইমিগ্রেশন এর যে কোন শাখা অফিস হতে। যেমনঃ জাফেলিয়া, আল-তাওয়ার সেন্টার, এরাবিয়ান সেন্টার ইত্যাদি।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন