শিরোনাম :

পদ্মার চরে ফাটল দিয়ে অবিরাম নির্গত হচ্ছে গ্যাস


শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৯:২০ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

পদ্মার চরে ফাটল দিয়ে অবিরাম নির্গত হচ্ছে গ্যাস

ডেস্ক প্রতিবেদন: রাজশাহী শ্রীরামপুর টি-বাঁধ সংলগ্ন পদ্মার জেগে ওঠা চরে উঠছে গ্যাস বুদবুদ। বেশ কয়েকটি ফাটল দিয়ে অবিরাম নির্গত হচ্ছে গ্যাস। প্রায় এক সপ্তাহ ধরে বেরিয়ে আসা এ গ্যাসে পানি গরমের কাজ সারছেন স্থানীয়রা। এনিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। তবে এখনো সেখানে সুরক্ষা ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

২০১৫ সালের শুরুর দিকে রাজশাহী নগরীর উপকণ্ঠ পবা উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের নবগঙ্গা এলাকার পদ্মা নদীর চরে এমনই গ্যাস বুদবুদ মেলে। প্রায় ৩ বিঘা এলাকাজুড়ে ২৫ থেকে ৩০টি ছোট-বড় গর্তে বের হচ্ছিল গ্যাস। অল্পদিন পরেই বন্ধ হয়ে যায় সেই উদ্গিরন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান বলেন, ওখানে কিছু জ্বালানো যাবে না। এতে বিস্ফারণ ঘটতে পারে। সাধারণ মানুষকে এ বিষয়ে সাবধান থাকতে হবে। ওই জায়গায় কোনো এক সময় গাছ জাতীয় জিনিস নিচে চাপা পড়ে থাকতে পারে। যা পচে গ্যাস তৈরি হয়েছে। এটা কিছুদিন পর শেষ হয়ে যাবে।

এদিকে স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, টি-বাঁধের পাশে পদ্মার চরের তিন-চারটি স্থানে বুদ বুদ আকারে তরল কিছু বের হতে দেখেন স্থানীয় এক স্যানেটারি মিস্ত্রী। কৌতুহলবশত তিনি তাতে ম্যাচের কাঠি মারেন। পরে সেটিতে শিখা আকারে জ্বলে ওঠে আগুন।

এরপর পাইপ বসিয়ে কয়েকটি মুখ বানিয়ে গ্যাসে দিব্যি পানি গরমের কাজ সারছেন মাঝিমাল্লারা। প্রায় সপ্তাহখানেক সময় ধরে এ ঘটনা ঘটলেও এখনো তা নজরে আসেনি কর্তৃপক্ষের।
 
পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের (পিজিসিএল) ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী এএফএম আজাদ কামাল দুলাল। তিনি বলেন, তারা খবর পেয়েছেন। তাদের ধারণা এটি ছোট পকেট গ্যাস। সল্প সময়ের মধ্যেই তা নিঃশ্বেস হয়ে যাবে। আপাতত এনিয়ে তাদের কিছুই করণীয় নেই।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন