শিরোনাম :

নীলফামারীতে দুই দিন ব্যাপি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব সমাপ্ত


সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৭:১৩ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

নীলফামারীতে দুই দিন ব্যাপি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব সমাপ্ত

নীলফামারী প্রতিনিধি: “এগিয়ে যাচ্ছে নীলফামারী, এগিয়ে যাক-সুস্থ্য ধারা চলচ্চিত্রই হোক তরুন সমাজের অঙ্গীকার” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে দুইদিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত ১ম নীলফামারী স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৭ শেষ হয়েছে।

রবিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে ফিল্ম সোসাইটির আয়োজনে চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি হয়। ৪০টি শর্ট ফিল্মের মধ্যে নির্বাচিত ২০টি শর্ট ফিল্ম প্রদর্শন করা হয়েছে।

প্রদর্শনী শেষে সমাপনী অনুষ্ঠানে ২০টি ফিল্মের নির্মাতাদের হাতে ক্রেস্ট ও সনদপত্র তুলে দেন উৎসবের প্রধান অতিথি নীলফামারী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহীম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, নীলফামারী পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জেলা আহ্বায়ক আহসান রহিম মঞ্জিল, নীলফামারী ফিল্ম সোসাইটির উপদেষ্টা ও দৈনিক জনকন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার তাহমিন হক ববী, উপদেষ্টা ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ওয়াদুদ রহমান, জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মাসুদ সরকার, জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক স¤পাদক রাসেল আমিন স্বপন, ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি সৈয়দ সামস, সাধারন স¤পাদক সাগর রেইন, সাংগঠনিক স¤পাদক ইনজামাম-উল-হক নির্ণয় প্রমুখ।

শনিবার উৎসবের প্রথম দিনে বিকাল ৪টায় আনুষ্ঠানিকভাবে উৎসবের উদ্বোধন করেন নীলফামারী পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ। বিকাল ৫টায় নির্বাটিত প্রথম ১০টি ফিল্ম প্রদর্শন করা হয়। এর মধ্যে ১০টি শর্ট ফিল্ম হচ্ছে – বাংলো-৩১, পরিনতি, দ্যা ডার্ক স্কাই, ১৬’এস ল্যাভ, ধোয়া বাবা, ফ্রেন্ডস ফর এভার, ওভার কনফিডেন্স, ব্রেস্ট স্কুল, লোভে পাপ-পাপে মৃত্যু এবং আই এম নট বেগার। দ্বিতীয় দিন প্রদর্শনী ১০টি শর্ট ফিল্ম হচ্ছে নিরব অনুভুতি, মিষ্টি, স্টপ চাইল্ড ম্যারেজ, রিয়ালাইজ, অসহায়, বি টেন্ড অন ইউওর চাইল্ড, ফেসবুক অ্যাডিশন, ফিল ট্যা মিউজিক ফিল ট্যা পেন, রিক্সা, ওভার কনফিডেন্স এবং সারপ্রাইজ।

চলতি বছরের ১৯ মে কে-পপ ওয়ার্ল্ড ফেস্টিভ্যাল ২০১৭ দ্বিতীয় রাউন্ড সারা বাংলাদেশে দ্বিতীয় রানার আপ নীলফামারীর ডি-পজিটিভ ডান্স গ্রুপ হওয়ায় নীলফামারী ফিল্ম সোসাইটির পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, আজকে আমরা যেই শর্ট ফিল্মগুলো দেখলাম তা প্রত্যেকটি মানুষের জীবনের সাথে সংযুক্ত। আজকে এখানে একটি মা হারা ছেলে, বাল্য বিয়ে, সন্তান হারা বাবা আরো অনেক ধরনের শর্ট ফিল্ম দেখলাম। আশা করি নীলফামারী শিল্ম সোসাইটি আগামীতে আরো সুন্দর শর্ট ফিল্ম আমাদেরকে উপহার দিবে। উল্লেখ্য, নীলফামারী জেলার ১৬জন তরুণ নির্মাতা উৎসবে ছবি জমা দেন। বিচারকেরা ৪০টি চলচ্চিত্র মধ্যে ২০টি চলচ্চিত্র প্রদর্শনের জন্য নির্বাচন করেন।

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন