শিরোনাম :

আমেরিকায় স্মার্টফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা


শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

আমেরিকায় স্মার্টফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক: চীনা স্মার্টফোনের ব্যবহার অবিলম্বে বন্ধ করার সুপারিশ করল মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা। নিরাপত্তা সংক্রান্ত কারণে চীনা সংস্থা Huawei ও ZTE-র মতো সংস্থার ফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারির সুপারিশ করল সিআইএ, এফবিআই, এনএসএ ও সেন্ট্রাল ইউএস ইন্টেলিজেন্স। ইন্টেলিজেন্স কমিটির এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে মার্কিন গোয়েন্দারা এই সুপারিশ করেন।

এফবিআই ডিরেক্টর ক্রিস রে বলেছেন, ‘দেশের টেলিকম নেটওয়ার্কে কোনও ক্ষতিকারক বিদেশি সংস্থাকে অনুপ্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না। বিশেষত তাদের, যারা আমাদেরই দেশের তথ্য আমাদের সঙ্গেই ভাগ করে নেবে না।’

মার্কিন গোয়েন্দারা আরও জানাচ্ছেন, একাধিক চীনা সংস্থার হ্যান্ডসেট মারফত দেশের গুরুত্বপূর্ণ সামরিক তথ্য বিদেশি শক্তির হাতে পৌঁছে যাচ্ছে। এই প্রবণতা অত্যন্ত বিপজ্জনক আমেরিকার মতো দেশের পক্ষে। এর ফলে দেশের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বড়সড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে। শুধু তথ্য চুরি বা পাচার নয়, মার্কিন সেনার উপর প্রযুক্তির মাধ্যমে নজরদারি চালানোরও অভিযোগ উঠেছে।

আপাতত মার্কিন সাংসদরা একটি বিল আনার পক্ষে চিন্তাভাবনা করছেন। ওই বিল পেশ ও পাশ হলে মার্কিন মুলুকে সমস্ত সরকারি কর্মীদের উপর চিনা ফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা চালু হতে পারে।

যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে Huawei সংস্থাটি। তাদের পালটা দাবি, তাদের সংস্থার ব্যবসাকে প্রভাবিত করতে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তরের একটি প্রভাবশালী লবি উঠেপড়ে লেগেছে।

সংস্থাটি এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘১৭০টিরও বেশি দেশে আমাদের সংস্থার ফোন ব্যবহৃত হয়। কেন্দ্রীয় সরকার থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ-কারওরই আমাদের ফোনের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ নেই। সাইবার হামলার কোনওরকম আশঙ্কা কখনও দেখা দেয়নি।’

সংস্থাটি সম্প্রতি আমেরিকাতে তাদের একটি নয়া হ্যান্ডসেট ‘মেট ১০ প্রো’ বিক্রির জন্য ঝাঁপিয়েছে। একটি মার্কিন সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই হ্যান্ডসেটটির বিক্রি বাড়াতে অবৈধ পদ্ধতি অবলম্বন করছে সংস্থাটি। যেমন, নকল ক্রেতা সাজিয়ে বেশ কয়েকজনকে দিয়ে ইন্টারনেটে ভাল ভাল রিভিউ লেখানো হচ্ছে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন