শিরোনাম :

ঈদের সালামি হিসেবে বই পেলো শিশুরা


বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০১৫, ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ঈদের সালামি হিসেবে বই পেলো শিশুরা

গাজী মুনছুর আজিজ : সব শিশুর গায়ে নতুন ঝলমলে জামা। আর তাদের সবার হাতে নতুন নতুন বই। বইগুলো শিশুতোষ। এ বই তারা পেয়েছে ঈদের সালামি হিসেবে। বড়দের কাছ থেকে টাকার পরিবর্তে সালামি হিসেবে এমন বই পেয়ে তারা সবাই সিমাহীন খুশি। আর এ ব্যতিক্রমী সালামি হিসেবে শিশুদের হাতে এসব বই তুলে দিয়েছে চাঁদপুরের গাজী আবদুর রহমান পাঠাগার। চাঁদপুরের সদর উপজেলার নানুপুর গামের গাজী বাড়িতে ঈদুল ফিতরের দিন ১৮ জুলাই দুপুরে শিশুদেরকে দেয়া হয়েছে এ বই। শিশুদের মাঝে বিতরণ করা বইগুলোর মধ্যে ছিলো-গল্প, ছড়া, কবিতা, সায়েন্স ফিকশন, মুক্তিযুদ্ধ, বিজ্ঞান, ফুল, পাখি ও সাধারণজ্ঞানের বই। পাঠাগারের উপদেষ্টা ও সদস্যরা এসব বই তুলে দেন প্রায় অর্ধশত শিশুদের হাতে। সপ্তম বারের মতো পাঠাগারটি ঈদ সালামি হিসেবে এ বই বিতরণ করলো। এর আগেও তারা একই স্থানে ও উপজেলার ইসলামপুর গাছতলা গ্রামের শিশুদের মাঝে ঈদের সালামি হিসেবে বই বিতরণ করেছে। সাধারণত বাড়ির বড়রা সব সময়ই শিশুদেরকে ঈদের সালামি বা উপহার হিসেবে নতুন পোশাক, নতুন জুতা বা নতুন টাকা দিয়ে থাকেন। তাই ব্যাতিক্রমী সালাহি হিসেবে এমন মজার মজার নতুন বই পেয়ে শিশুরা একটু বেশিই উচ্ছাসিত হয়েছে। চাঁদপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুলের শিক্ষার্থী সিয়াম দেওয়ান, ইসলামপুর গাছতলা গ্রামের শিক্ষার্থী সৈকত মজুমদার, স্থানীয় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষার্থী জান্নাত, মাহি, শাহিসহ বই পাওয়া অন্য শিশুরা জানালো, তাদের খুব খুশি লাগছে ঈদের দিন মজার মজার নতুন এ বই উপহার পেয়ে। পাঠাগারের উপদেষ্টা আবুল হাশেম গাজী, মরিয়ম বেগম ও কানিজ ফাতেমা ঝর্ণা বলেন, শুধু পাঠ্য বই নয়, শিশুদেরকে আরও বেশি বেশি জানতে হলে পাঠ্য বইয়ের বাইরে অন্যান্য সাহিত্য ও জ্ঞান সম্মৃদ্ধ বইও পড়তে হবে। এছাড়া শিশুরা আগামী দিনের দেশ ও জাতির ভবিষৎ। তাই তাদেরকে বইয়ের প্রতি আগ্রহী করে তুলতেই আমাদের এ বই বিতরণ কার্যক্রম। আমরা আশা করছি সব উৎসব-পার্বণেই বড়রা শিশুদের বই উপহার দিবে। দেশীয় পণ্যের উৎপাদক ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান মরিয়ম ক্র্যাফট বরাবরের মতো এবারও বই বিতরণ কার্যক্রমের সহযোগিতা করেছে। ২০০১ সালে পাঠাগারটি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠিতকাল থেকেই পাঠাগারের উদ্যোগে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান, গাছেরচারা বিতরণ ও রোপণ, সাধারণজ্ঞান ও বিভিন্ন খেলাধুলা প্রতিযোগিতার আয়োজন, ইলিশ আড্ডাসহ বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমের আয়োজন এবং ‘ঈদ উৎসব’ নামের ঈদের শুভেচ্ছাপত্র প্রকাশিত হয়ে আসছে। ছবি : লেখক

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন