শিরোনাম :

পটুয়াখালীতে নদীর তীর দখল করে বিআইডব্লিটিএ’র স্টল নির্মাণ


শুক্রবার, ৩ জুন ২০১৬, ০৭:৫০ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

পটুয়াখালীতে নদীর তীর দখল করে বিআইডব্লিটিএ’র স্টল নির্মাণ

এস. আহমেদ, পটুয়াখালী থেকে, (বরিশাল প্রতিনিধি): পটুয়াখালীতে নদী ভরাট করে স্টল নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন বন্দর কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) এর বিরুদ্ধে। পটুয়াখালী নদী বন্দর ভবনের বাইরে নদী তীরের ভূমি দখল করে স্টল নির্মাণ করা হচ্ছে।

অভিযোগ উঠেছে, পটুয়াখালী নদী বন্দরের ওই এলাকায় স্টল নির্মাণ করে শহরের একটি গ্রুপের কাছে ভাড়া দেয়ার জন্য বন্দরের সহকারী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক মোটা অংকের আর্থিক সুবিধা নিয়ে বিআইডব্লিউটির প্রকৌশল বিভাগকে দিয়ে এ কাজটি করাচ্ছে। যা একাধিক সূত্র নিশ্চিতও করেছে। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আব্দুর রাজ্জাক। বৃহস্পতিবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, পটুয়াখালী নদী বন্দর ভবনের উত্তর পাশে লঞ্চঘাটে যেতে সিড়ির মাঝ খানে জেগে ওঠা ডুবো চরের অনেকটা অংশ দখল করে ইটের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হচ্ছে।

স্থানীয় ঘাট শ্রমিকদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, এই স্থানে মনে হয় স্টল নির্মাণ করা হবে।

বিআইডব্লিউটি’র সূত্র মতে, নদীর জোয়ারের সর্বোচ্চ সীমার স্থান থেকে ১৫০ ফুট পর্যন্ত নদীর তীর ভূমি হিসেবে গন্য হবে। আর এই স্থানে কোন ধরনের কাচা ও পাকা স্থাপনা নির্মাণ করা যাবে না। এই আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে বিআইডব্লিউটির সহকারী পরিচালক নিজেই ফুলের বাগান তৈরীর নাম করে তীরভূমির বিশাল একটি অংশে কংক্রিটের দেয়াল তৈরী করছে। তাদের এই দখল প্রক্রিয়া শহরের অন্য সব দখলদারকে উৎসাহীত করবে বলে মনে করেন স্থানীয়রা।

এব্যাপারে পটুয়াখালী নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক জানান, ‘এটি আমার কাজ নয়, বরিশালে প্রকৌশল বিভাগের কাছে যান, এটি তাদের বিষয়। এছাড়া এটা অন্যের জায়গা নয় আমাদের নিজস্ব জমিতেই বাগান নির্মাণ করা হচ্ছে।’

তবে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক এ.কে.এম শামিমুল হক সিদ্দিকী’র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে দেখছি।’

এমএল

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন