শিরোনাম :

বেরোবি প্রশাসনে রদবদলে সমালোচনা


সোমবার, ১৯ জুন ২০১৭, ০৫:১৩ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বেরোবি প্রশাসনে রদবদলে সমালোচনা

বেরোবি প্রতিনিধি: যোগদানের তিনদিনের মধ্যে প্রশাসনে ব্যাপক রদবদল করেছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ। কিছু পদে রদবদল ও নতুন করে কিছু পদে দায়িত্ব দিয়েছেন উপাচার্য। প্রশাসনিক এই পরিবর্তন বিভিন্ন মহলে সমালোচিত হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, উপাচার্যে ব্যক্তিগত সচিব (পিএস) পদ থেকে আলী হাসানকে সড়িয়ে নিরাপত্তা শাখায় স্থানান্তর করা হয়েছে। আর নিরাপত্তা শাখার সহকারী রেজিস্ট্রার আমিনুর রহমানকে ব্যক্তিগত সচিবের দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছে।

অন্যদিকে উপাচার্যের ব্যক্তিগত সহকারীর (পিএ)পদ থেকে মতিয়ার রহমানকে সড়িয়ে কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আবুল কালাম আজাদকে নিয়ে আসা হয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টোরিয়াল বডিতে সহকারী প্রক্টর হিসেবে তিন শিক্ষককে দায়িত্ব অর্পন করা হয়েছে। দায়িত্বপ্রাপ্ত নতুন সহকারী প্রক্টরগণ হলেন কম্পিউটার সায়েন্স এ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক সামসুজ্জামান, ভুগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের শিক্ষক আতিউর রহমান ও ম্যানেজমেন্ট স্ট্যাডিজ বিভাগের শিক্ষক সদরুল ইসলাম।

শাস্তিপ্রাপ্ত কর্মচারী আবুল কালাম আজাদকে পিএ পদে নিয়োগ দেয়ার বিষয়টি ব্যাপক সমালোচিত হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক অভিযোগ করেন, বিভিন্ন সময়ে বিতর্কিত ও অনিয়মের অভিযোগে শাস্তিপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে পিএ পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। পিএ পদে নিয়োগপ্রাপ্ত আবুল কালাম আজাদ ২০১৫-১৬ শিক্ষা বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অনিয়ম করেছিলেন। যা তদন্তে প্রমানিত হওয়ায় তার আপগ্রেডেশন-প্রমোশন ৫ বছর বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। সেই শাস্তির দুই বছর পার না হতেই তাকে এই পদে নিয়োগ দেয়াকে অনিয়ম বলেও দাবি করেন তিনি।

সার্বিক বিষয়ে উপাচার্য প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ জানান, আবুল কালাম আজাদের শাস্তির বিষয়টি আমার জানা ছিল না। সংবাদকর্মীদের থেকে আমি বিষয়টি জেনেছি। খুবই সাময়িক সময়ের জন্য তাকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ঈদের পরে নতুন করে পিএস ও পিএ পদে নিয়োগ দেয়া হবে।

এসএস/এমকে

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন