শিরোনাম :

বিয়ের ৫দিন পর পরকিয়া প্রেমের বলি স্বামী, স্ত্রী আটক


বৃহস্পতিবার, ২৯ মার্চ ২০১৮, ০৫:১৯ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

বিয়ের ৫দিন পর মৃত্যুর সঙ্গে যুদ্ধ করে অবশেষে মারা গেলেন আব্দুল মজিদ (২০)। তিনি উপজেলার চৌবিলা কাচারিপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল হানিফের ছেলে। গত ২৩ মার্চ তিনি হাট চৌবিলা গ্রামের আমজাদ হোসেনের মেয়ে আলপনা খাতুনের (১৯) সঙ্গে তার বিয়ে হয়। পুলিশ আলপনাকে আটক করেছে।

সলঙ্গা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সরোয়ার হোসেন জানান, আব্দুল মজিদ বিয়ের পর ২৪ মার্চ নিয়ম অনুযায়ী হাট চৌবিলা গ্রামে তার শ্বশুর বাড়িতে যান। রাতের খাবার শেষে তিনি তার স্ত্রীসহ ঘুমাতে যান। গভীর রাতে স্ত্রী আলপনা চিৎকার করে জানান ঘরে তার স্বামী নেই। বাড়ির লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজির পর নিকটবর্তী একটি বাঁশ বাগানে আব্দুল মজিদকে মুমূর্ষু অবস্থায় দেখতে পান। তার শরীরের বিভিন্নস্থানে নির্যাতনের চিহ্ন ছিল। পরদিন তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখানে ৫দিন মৃত্যুর সঙ্গে যুদ্ধ করে বধুবার তিনি মারা যান। পুলিশ বুধবার রাতেই আলপনাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

এএসআই সরোয়ার হোসেন আরও জানান, আলপনা খাতুনের পরকিয়া প্রেমের বলি হতে পারেন স্বামী আব্দুল মজিদ। বৃহস্পতিবার আব্দুল মজিদের বড় ভাই আব্দুল মমিন এ ব্যাপারে বাদী হয়ে সলঙ্গা থানায় একটি খুনের মামলা দায়ের করেছেন। মামলাতে প্রাথমিকভাবে আসামি অজ্ঞাত রাখা হয়েছে।

আব্দুল মমিন জানান, তার ভাইয়ের মৃত্যু কি কারণে হয়েছে তা পরিষ্কার করে বলতে পারছেন না। আব্দুল মজিদকে বৃহস্পতিবার তার গ্রামের বাড়ির কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন