শিরোনাম :

`মহারাজা' এখন ইলিশ


শুক্রবার, ৬ এপ্রিল ২০১৮, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

`মহারাজা' এখন ইলিশ

ঢাকা: ইলিশ এমনিতেই মাছের রাজা।তার ওপরে বৈশাখ এলে আমাদের জাতীয় মাছ ইলিশ যেন হয়ে ওঠে মহারাজা।বাঙালির চিরায়ত বর্ষবরণের ঐতিহ্য পান্তা ইলিশ।ইলিশ ব্যতিরেকে বর্ষবরণ অনেকের কাছে অকল্পনীয়।বর্ষবরণের দিন ইলিশের চাহিদা ব্যাপক।অথচ ব্যাপক চাহিদার তুলনায় বাংলাদেশের বৃহৎ মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার বিএফডিসিতে ইলিশের সরবরাহ খুবই অপ্রতুল।

ইলিশ মৌসুম শুরু না হওয়াতে গভীর সমুদ্রের মাছ উঠছে না বিএফডিসি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে।বলেশ্বর বিষখালীতে যে মাছ শিকার করছে জেলেরা সেই মাছ খুব ভোরে বেচাকেনা হচ্ছে বিএফডিসি পাইকারি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে।

দূর-দূরান্তের পাইকাররা সামান্য কিছু ইলিশ মাছ কিনতে পারলেও অনেক পাইকার হতাশ হয়ে ফিরে গেছেন।পাথরঘাটার বিএফডিসির মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র থেকে ঢাকা, বরিশাল, খুলনা, রাজশাহী, যশোরসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সরবরাহ হয় ইলিশ।
বরগুনা জেলার ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানান, মূলত ইলিশ মৌসুম শুরু হবে জ্যৈষ্ঠ মাস থেকে।

বর্তমানে বিএফডিসিতে গভীর সমুদ্রে যাওয়া ফিশিং ট্রলারের মাছ নেই বললেই চলে। জ্যৈষ্ঠ মাসে ইলিশ মৌসুমকে কেন্দ্র করে ফিশিং ট্রলারের প্রাথমিক প্রস্তুতি চলছে।গেলো বছর ‘মা’ ইলিশ রক্ষার সময় প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতা দেখা গেছে।মা ইলিশ রক্ষায় প্রশাসন সফল।কিন্তু ইলিশ থেকে উৎপাদিত ইলিশের পোনা অবৈধ জালে মারা পড়েছে এবং এক শ্রেণির অসাধু জেলেরা জাটকা আকারের ইলিশ শিকার করে বিক্রি করেছে।

দু:খের বিষয় হলো সেই জাটকা ইলিশ বিক্রি হয়েছে টনকে টন বিএফডিসিতে। সেই জাটকা রক্ষা পেলে বলেশ্বর ও বিষখালী নদীতে মাঝারি ইলিশ পাওয়া যেত বৈশাখের আগে।যার দ্বারা বৈশাখে ইলিশের চাহিদা অনেকটা পূরণ হতো।পাথরঘাটার মৎস্য আড়ৎদার ছগির হোসেন জানান, বিএফডিসিতে যে পাইকাররা আসছেন তাদের চাহিদার ১০ ভাগের তিন ভাগও দিতে পারছি না।

এক কেজি থেকে শুরু করে তার অধিক ওজনের ইলিশ মণ প্রতি ৮০ হাজার থেকে লাখ টাকা বিক্রি হয়েছে। ছয়শ গ্রাম থেকে নয়শ গ্রাম ইলিশ মণ প্রতি ৪০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে।

দেশের বৃহৎ মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ইলিশের ব্যাপক চাহিদার কারণে এমন অপ্রত্যাশিত দামে ইলিশ কেনাবেচা চলছে।জাটকা নিধন বন্ধ ও প্রশাসন তৎপর থাকলে ইলিশের সরবরাহ চাহিদার সঙ্গে সামনঞ্জস্যপূর্ণ হতে পারে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন