শিরোনাম :

ফাইনালে কি ফিরছেন মুস্তাফিজুর রহমান?


রবিবার, ২৯ মে ২০১৬, ০৫:০৫ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ফাইনালে কি ফিরছেন মুস্তাফিজুর রহমান?

ডেস্ক প্রতিবেদন: যাঁর বোলিং নিয়ে রীতিমতো তোলপাড় ক্রিকেট বিশ্বে সেই মুস্তাফিজুর রহমান কি আজ আইপিএল-এর ফাইনালে ফিরছেন?

আইপিএলজুড়েই দুর্দান্ত বোলিং করে ক্রিকেট বিশ্বের নজর কেড়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এ সময়ের সেরা বোলার হিসেবেও অনেকে বিবেচনা করছেন মুস্তাফিজকে। কিন্তু আইপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেই বাংলাদেশের এই পেসারকে মাঠে পায়নি সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ইনজুরির কারণে ছিটকে গিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। 

হ্যামস্ট্রিংয়ে চোটের কারণে গুজরাট লায়ন্সের বিরুদ্ধে কোটলায় বিশ্রামে ছিলেন মুস্তাফিজ। দলের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বোলারকে নিয়ে কোনও ঝুঁকি নিতে চায়নি সানরাইজার্স হায়দরাবাদের টিম ম্যানেজমেন্ট। শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে মুস্তাফিজ যেন মাঠে নামতে পারেন, সেই চেষ্টা সর্বাত্মকভাবেই করে যাচ্ছে হায়দরাবাদ।

আজ শিরোপা জয়ের অন্তিম লড়াইয়ে মুস্তাফিজকে খুব করেই দলে চাইবে হায়দরাবাদ। আর মুস্তাফিজকে সুস্থ করে তোলার সর্বোচ্চ চেষ্টাও করে যাচ্ছেন হায়দরাবাদের চিকিৎসকরা। দলের বোলিং আক্রমণের অন্যতম সেরা অস্ত্রটিকে মাঠে পাওয়ার জন্য শেষপর্যন্ত অপেক্ষা করা হবে বলেও জানানো হয়েছে হায়দরাবাদের পক্ষ থেকে।

দলের ফিজিওদের সেদিন থেকেই কাটার মাস্টারকে নিয়ে লড়াই চলছে।

যে ভাবেই হোক ফাইনালে ফেরাতেই হবে মুস্তাফিজকে। একান্তই না পারলে তাঁর জায়গায় খেলবেন ট্রেন্ট বোল্ট। যদিও হায়দরাবাদের বোলিং ডিপার্টমেন্ট যথেষ্টই শক্তিশালী। ভুবনেশ্বর কুমার, বারিন্দর স্নান, এনরিকস, বিপুল শর্মারা রয়েছেন।

এমন অবস্থায় মুস্তাফিজুর একান্তই না খেলতে পারলে বাকিদের বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে ফাইনালের আসরে। তবে যা খবর অনেকটাই ভাল আছেন মুস্তাফিজুর।

প্রথম ম্যাচে চার ওভার বল করে মাত্র ২৬ রানের বিনিময়ে নিয়েছিলেন ডি ভিলিয়ার্স ও শেন ওয়াটসনের উইকেট। সেই ম্যাচে ২২৭ রানের পাহাড় গড়ে ব্যাঙ্গালোর জিতেছিল ৪৫ রানে। আর ফিরতি লেগের ম্যাচে মুস্তাফিজ তুলে নিয়েছিলেন বিরাট কোহলির উইকেট। মাত্র ১৪ রান করে সাজঘরে ফিরতে হয়েছিল কোহলিকে। এই ম্যাচে হায়দরাবাদ পেয়েছিল ১৫ রানের জয়।

টানা ১৫ ম্যাচ খেলে ১৬ উইকেট নেওয়া মুস্তাফিজ বেশিরভাগ ম্যাচেই বিশেষ কিছু করে দেখিয়েছেন। ডেথ ওভারে দারুণ বোলিং করে ম্যাচ জিতিয়েছেন, রানের চাকা থামিয়ে রেখেছেন, গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নিয়েছেন। এ কারণে ট্রেন্ট বোল্টের থেকে এগিয়ে ‘দ্য ফিজ’।

এশিয়া কাপের সময়ও চোট পেয়ে ছিটকে গিয়েছিলেন মাঝ পথে। টি২০ বিশ্বকাপের শুরু থেকে খেলতে পারেননি। কিন্তু যখন ফেরেন তখন স্বমহিমায়।

আইপিএল কাঁপিয়ে শেষ ম্যাচে ফাইনালের মতো আসরে না খেলতে পারলে আফসোসটা থেকে যাবে সারাজীবন। তাই তিনিও চাইছেন যেভাবেই হোক ফাইনালটা খেলতে।

তবে চোট নিয়ে খেলিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটের এই প্রতিভাকে নিয়ে ঝুঁকি নিতে চাইবে না কেউই।

এমকে

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন