শিরোনাম :

ক্রিকেটের মহাতারকাদের মুখে মুস্তাফিজ বন্দনা


সোমবার, ৩০ মে ২০১৬, ০৭:৫১ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ক্রিকেটের মহাতারকাদের মুখে মুস্তাফিজ বন্দনা

ক্রীড়া প্রতিবেদক: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার পর থেকেই বাংলাদেশ ক্রিকেটের বিস্ময় বালক মুস্তাফিজুর রহমান তার জাদুকরী বোলিংয়ে সবাইকে মন্ত্রমুগ্ধ করে রেখেছেন। পাকিস্তানের সঙ্গে অভিষেক টি-টোয়েন্টির জোড়া উইকেট দিয়ে শুরু, এরপর ভারতের ওয়ানডে অভিষেকে পাঁচ উইকেট। বিশ্বকাপেও মাত্র ৩ ম্যাচেই ৯ উইকেট। মুস্তাফিজ মানেই যেনো উইকেট পাওয়ার নিশ্চয়তা!

সদ্য সমাপ্ত আইপিএল-এর সেরা আবিষ্কারও তিনি।আইপিএলের যে কয়েকজন বিদেশি ক্রিকেটার বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম মুস্তাফিজ। ১৬ ম্যাচে তুলে নিয়েছেন ১৭ উইকেট। আইপিএল শেষে তাঁর হাতেই উঠেছে সেরা নতুন প্রতিভার পুরস্কার। মোট ৮৩.২ শতাংশ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন মুস্তাফিজ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু খেলোয়াড় লোকেশ রাহুল পেয়েছেন ৬.৩ শতাংশ ভোট। পুরো টুর্নামেন্টে তাঁকে নিয়ে শোনা গিয়েছে নানা মন্তব্য। পুরো বিশ্বের ক্রিকেট মহল ঘুরে ফিরে মন্তব্য করেছে তাঁকে নিয়ে। প্রসংশায় ভরিয়েছেন সকলেই। দেখে নেওয়া যাক দ্যা ফিজকে নিয়ে কে কী বলেছেন...

রামিজ রাজা: অ্যান্ডারসন, স্টেইনদের মতো প্লেয়াররা রয়েছেন। যাঁরা টেস্টে খুব ভাল। কিন্তু লিমিটেড ওভারের ক্রিকেটে এই মুহূর্তে সেরা পেসার মুস্তাফিজুর রহমানই।

মনোজ প্রভাকর: এটা নিয়ে কোনও সংশয় নেই মুস্তাফিজুরই এই মুহূর্তের সেরা বোলার। শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গা ভাল ইয়র্কার করতে পারে। কিন্তু মুস্তাফিজুর এখন তাঁর সেরা ফর্মে রয়েছে। ও দারুণ দ্রুততার সঙ্গে কাটার করতে পারে। একই সঙ্গে বলে নানা রকম পরিবর্তন আনতে পারে।

কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত: এই মুহূর্তে তাঁর থেকে ভাল বোলার খুব একটা নেই। কিন্তু ওকে এই খেলাটা আরও কিছুদিন ধরে রাখতে হবে। তার পরই তাঁকে আমরা সেরার তকমা দিতে পারব।

ডেল স্টেইন: ওয়াসিম আকরামের মধ্যে যে এক্স ফ্যাক্টর ছিল সেটা মুস্তাফিজের মধ্যেও আছে। ওর বোলিং দেখতে দারুণ লাগে। ও যেভাবে পেসের পরিবর্তন করে সেটা আগে দেখিনি। ও আরও উন্নতি করবে।

রবি শাস্ত্রী: এ ছেলে বিস্ময় প্রতিভা। ভারতের বিরুদ্ধে একটা ওয়ান ডে সিরিজে দুটো পাঁচ উইকেট নেওয়া পারফরম্যান্স দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেছিল। এরকম প্রতিভাকে লালন করতে হবে।

হাবিবুল বাশার: টি-টোয়েন্টিতে যেখানে বোলারদের উপর চড়াও হয় ব্যাটসম্যানরা সেখানে ও রানের উপর নিয়ন্ত্রণ রাখছে। ওকে মেরে খেলা বিপজ্জনক বলেই ব্যাটসম্যানরা মেরে খেলতে চায় না।

মুরালিধরন: মুস্তাফিজুর শুধু বাংলাদেশ নয় আইপিএল-এ হায়দরাবাদেরও বড় সম্পদ হয়ে উঠে এসেছে। ওকে সঠিক পরিচর্যার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। তবেই ওর জন্য আগামীতে ও আরও বড় সাফল্য পাবে।

ডার্ক ন্যানেস: এখনও পর্যন্ত মুস্তাফিজুরের বল কেউ পড়তে পারেনি। যে ভাবে অ্যাকশন পরিবর্তন না করে বলের গতি বদলে ফেলতে পারে সেটাই সবাইকে ধন্দে ফেলে দেয়।সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

এমএল

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন