শিরোনাম :

কলাবাগানের কাছে মোহামেডানের হার


শনিবার, ৪ জুন ২০১৬, ০৬:০২ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

কলাবাগানের কাছে মোহামেডানের হার

ক্রীড়া প্রতিবেদক: কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের কাছে হেরে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থান থেকে চারে নেমে এসেছে শিরোপাপ্রত্যাশী মোহামেডান।

সমীকরণটা ছিল, এই ম্যাচ জিতলেই সুপার সিক্সে উঠে যাবে মুশফিকের দল। আর মাশরাফিদের শীর্ষ ছয়ে পৌঁছাতে হলে এই ম্যাচসহ পরের ম্যাচটাতেও জিততে হবে আর সেই সাথে কামনা করতে হবে পয়েন্ট টেবিলের উপরের দিকে থাকা দলের কেউ যাতে হেরে যায়। আপাত লড়াইয়ে মাশরাফি জয়ী হলেও সুপার সিক্স নিশ্চিত নয় আর হারলেও পরের রাউন্ডে যাবার সুযোগ থাকছে মুশফিকের দলের সামনে।

শনিবার ফতুল্লায় মুশফিকের মোহামেডানকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে মাশরাফির কলাবাগান। বিপুল শর্মার ৮৬ বলে ১০০ ও মুশফিকের ৭৫ রানে ভর করে কলাবাগানের সামনে ২৯০ রানের বড় লক্ষ্য দাঁড় করায় মোহামেডান। জবাবে তাসামুলের শতক আর হাসানুজ্জামানের ৫৩ বলে ৯৫ রানের তাণ্ডবে ৪১ বল হাতে রেখেই জয় পায় মাশরাফিরা।

ফতুল্লায় টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি মোহামেডানের। ৬৯ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে বসে তারঅ তবে এখানে ভালো একটা জুয়া খেলেন মুশফিক। ইনফর্ম আরিফুল, মিলনদের রেখে পাঁচে নামিয়ে দিলেন ভারতীয় অলরাউন্ডার বিপুল শর্মাকে। বিপুলকে নিয়ে ১৭১ রানের জুটি বেধে দলকে ভালো জায়গায় দাঁড় করিয়ে দেন মুশফিক। মাত্র ৮৫ বলে ৬টি চার ও ৮টি ছক্কায় শতরান করেন এই ভারতীয় অলরাউন্ডার।

অবশ্য এরপর বেশিক্ষণ টিকতে পারেন নি তিনি। পরের বলেই বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। ৭৫ রান করে ফিরেন মুশফিকও। আর এই দুইজনের উপর ভর করে ২৯০ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করায় মোহামেডান।

জবাবে স্কোরবোর্ডে কোনো রান না উঠতেই জসীমউদ্দিনের উইকেট হারায় কলাবাগান। এরপর তাসামুল আর হাসানুজ্জামান মিলে সংগ্রহ করেন ১৪০ রান। এর মধ্যে ৯৫ রানই হাসানুজ্জামানের। ২২ রানের ব্যবধানে পরশ দগরা আর মেহেরাব হোসেনের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় কলাবাগান। তবে তানভীর হায়দারকে নিয়ে ১২৯ রানের জুটি বেঁধে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন তাসামুল। ১২৯ বলে ১২৬ রান করেন তিনি।

এসএ

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন